পিরোজপুরে শিক্ষিকাকে মারধরের ঘটনায় মামলা -আসামী গ্রেফতার। বিচারের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মিছিল

পিরোজপুর প্রতিনিধি, | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৬
পিরোজপুরে শিক্ষিকাকে মারধরের ঘটনায় মামলা -আসামী গ্রেফতার।
বিচারের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মিছিল
বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মিতালী খানম কে মারধর করে আহত করার ঘটনায় পিরোজপুর সদর থানায় মামলা দায়ের করা হলে হামলাকারী মা শিমু আক্তার ও নানী মাহমুদা বেগমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । সোমাবার দুপুরে আহত শিক্ষক মিতালী খানম বাদি হয়ে পিরোজপুর সদর থানায় এ মামলা দায়ের করেন। সোমবার গভীর রাতেই সদর উপজেলা মূলগ্রাম এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) হাচনাইন পারভেজ জানান, সোমবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মামলার দুই আসামীকে  গ্রেফতার করা হয়।   
অপর দিকে বিদ্যালয়ের শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের গ্রেফাতার ও বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। সোমবার বিকালে ওদনকাঠী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে একটি মিছিল শুরু করে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় মিছিলকারীরা শিক্ষকের উপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানান।
উল্লেখ্য, গত শনিবার  দুপুরে সদর উপজেলার ৪৫ নং ওদনকাঠী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেনীর ছাত্রী জেমির মা শিমু ও তার নানী মাহমুদা বেগম  বিদ্যালয়ে এসে শিক্ষকদের কাছে জানতে চান তার মেয়ে কেন প্রথম,দ্বিতীয় বা তৃতীয় হলনা। এক পর্যায়ে সে (ছাত্রীর মা শিমু) শিক্ষকদের সাথে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে এবং জেমির মার্কশীট ছিড়ে ফেলে। এ সময় শিক্ষক মিতালী খানম প্রতিবাদ করলে শিক্ষার্থী জেমির মা ফারজানা আক্তার শিমু ও তার নানী মাহমুদা বেগম শিক্ষিকা মিতালী খানম কে  কিল ঘুষি দেয় এবং দেয়ালের সাথে আঘাত করে। পরে বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকরা আহত মিতালী কে উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।