নোয়াখালীতে বন্দুকযুদ্ধে হত্যা মামলার আসামি আহত

নোয়াখালী প্রতিনিধি, | শনিবার, আগস্ট ২৭, ২০১৬
নোয়াখালীতে বন্দুকযুদ্ধে হত্যা মামলার আসামি আহত
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আসামি ছিনিয়ে নেয়ার সময় পুলিশের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের বন্দুকযুদ্ধ হয়েছে। শনিবার ভোররাতে চরপার্বতী ইউনিয়নের কেন্দ্রাতলি সোয়ানীরটেক নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। বন্দুকযুদ্ধে আবুল কালাম আজাদ নামে হত্যা মামলার এক আসামি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছেন বলে পুলিশের দাবি।

আহতরা পুলিশ সদস্যরা হলেন- কোম্পানীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক সাইফ উদ্দিন, কনস্টেবল হুমায়ুন ও জয়নাল। সন্ত্রাসী আদাজকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এ কে এম জহিরুল ইসলাম জানান, শুক্রবার রাতে চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানা এলাকা থেকে কোম্পানীগঞ্জের আলোচিত যুবলীগ নেতা আবু সুফিয়ান হত্যা মামলা প্রধান আসামি আবুল কালাম আজাদকে গ্রেপ্তার করে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

শনিবার ভোর সাড়ে চারটার দিকে তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। চরপার্বতী ইউনিয়নের কেন্দ্রাতলি সোয়ানীরটেক নামক স্থানে আসার পর হত্যা মামলার আরেক আসামি ইয়াছিনের নেতৃত্বে ৭-৮জন সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে আজাদকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। গুলিবিনিময়ের এক পর্যায়ে আজাদের হাটুতে গুলি লাগে। পরে ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি ও তিনটি ছোরা উদ্ধার করে পুলিশ। আজাদকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আজাদের বিরুদ্ধে হত্যা, হত্যা, ধর্ষণ, ডাকাতি ও অস্ত্র আইনে আটটি মামলা রয়েছে। গত ৪ আগস্ট চরপার্বতী ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আবু সুফিয়ানকে গুলি করে হত্যা মামলার আসামি আজাদ। এ ঘটনায় পুলিশের ওপর হামলা ও অস্ত্র আইনে পৃথক দুটি মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।