পলাশে কিশোরী হত্যা: দুই মাস পর মামলা নিল পুলিশ

নরসিংদী প্রতিনিধি, | শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬
পলাশে কিশোরী হত্যা: দুই মাস পর মামলা নিল পুলিশ
কিশোরী শারমিন আক্তার হত্যার ঘটনায় নানা অজুহাতে পুলিশ মামলা নিতে গড়িমসি করছিল। পরে স্থানীয় সাংবাদিকদের হস্তক্ষেপে অবশেষে দুই মাস পর মামলা নিল পুলিশ। এরপর পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশিত হলে নড়েচড়ে বসে পুলিশ প্রশাসন। হত্যাকা-ে জড়িত সন্দেহে আটক করা হয় সজিব (২২) নামের এক যুবককে।

পলাশ উপজেলার দক্ষিণ পলাশ এলাকার সরাফত আলীর ছেলে সজিবকে বৃহস্পতিবার দুপুরে নরসিংদীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্র্রেট আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। আদালত তার ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, শিগগির শারমীন আক্তারের মৃত্যুর মূল রহস্য উদঘাটন করা হবে।

গত ৯ জুলাই রাত নয়টার দিকে নিখোঁজ হয় শারমিন। পরদিন ভোর পাঁচটায় বাড়ির পাশে একটি ঝোঁপে সুপারি গাছের সঙ্গে ঝুলানো অবস্থায় তার মৃতদেহ এলাকাবাসী দেখতে পায়। এ সময় তার পা মাটিতে লেগে ছিল।

খবর পেয়ে পলাশ থানা পুলিশ তার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্তের রির্পোট না পাওয়া পর্যন্ত এ ব্যাপারে কিছু করা সম্ভব নয় বলে মামলা নেয়নি পুলিশ।

নিহতের পরিবারের দাবি, অপরাধীরা প্রভাবশালী হওয়ায় ঘটনা ভিন্ন দিকে নেয়ার চেষ্টা করেছিল পলাশ থানার পুলিশ। তাদের অভিযোগ পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে একটি মহল আত্মহত্যার ঘটনা সাজিয়ে ধামাচাপা দিতে চাইছে।