ভূয়া সনদ দিয়ে পুলিশে নিয়োগ চেষ্টা ভাঙ্গুড়ায় কনষ্টেবল প্রার্থীসহ ১০ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা আটক

পাবনা সংবাদদাতা, | বুধবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৬
ভূয়া সনদ দিয়ে পুলিশে নিয়োগ চেষ্টা
ভাঙ্গুড়ায় কনষ্টেবল প্রার্থীসহ ১০ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা আটক
পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ দাখিল করে পুলিশে নিয়োগের চেষ্টা করায় পাঁচ প্রার্থী ও তাদের পাঁচ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পিতাকে পুলিশ মঙ্গলবার আটক করেছে। আটককৃতরা হলো পুলিশের কনষ্টেবল প্রার্থী ভাঙ্গুড়া উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের জেল হক আলী (১৮) ও তার ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পিতা ইউনুছ আলী,আমিরুল ইসলাম(১৭) ও তার ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পিতা আছাহাব আলী এবং রবিউল ইসলাম(১৮) ও তার ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পিতা ফরাজ আলী,সাতবাড়িয়া গ্রামের  হাফিজুর রহমান(১৯) ও তার ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পিতা আমানত আলী এবং গোপালপুর গ্রামের রহমত উল্লাহ(১৭)  ও তার ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা পিতা নাজিম উদ্দিন। আটককৃতরা জানায় দালালের মাধ্যমে প্রতিটি সনদ সংগ্রহ করতে তাদের  ১ লাখ ২০ হাজার টাকা করে খরচ হয়েছে। ভাঙ্গুড়া থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, গত ২৫ সেপ্টেম্বর পাবনা পুলিশ লাইনে লোক নিয়োগের সময় ঐ কনষ্টেবল প্রার্থীরা নিজ নিজ পিতার নামে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ তৈরী করে জমা দেয়। কিন্তু সনদগুলো জাল প্রমাণিত হওয়ায়  মঙ্গলবার কনষ্টেবল প্রার্থী ও ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা মোট ১০ পিতা-পুত্রকে গ্রেফতার করে পাবনা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা রুজু করেছে।