তালতলীতে ভুয়া তালিকা দিয়ে এতিমদের টাকা আত্বসাৎ

তালতলী প্রতিনিধী (বরগুনা) | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৬
তালতলীতে ভুয়া তালিকা দিয়ে এতিমদের টাকা আত্বসাৎ
এতিমখানায় কোন এতিম না থাকলেও ০৬জন এতিমের ভূয়া তালিকা তৈরী করে তাদের খাওয়া দাওয়া পোষাক বাবদ হাতিয়ে নিচ্ছে সরকারী টাকা। এতিম খানাকে ব্যবহারকরে চলছে ভিক্ষা বৃত্তি ও চাদা বাজি তালতলী উপজেলার চামোপাড়া ছালেহিয়া মাদ্রাসায়। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাস্তবিক পক্ষে তালতলী উপজেলার চামোপাড়া ছালেহিয়া শিশু সনদ নামে নেই কোন সাইনবোর্ড শুধু একটি টিন সেট ঘরছারা। স্থানীয়রা বলেছেন, এতিম খানার ২০০৬ সালে ৬জন এতিমের তালিকা দেখিয়ে এর কার্যক্রম শুরু করে। উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর কার্যলয়ের সূত্রে যানা যায়, সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধিত চামোপাড়া ছালেহিয়া শিশু সনদ এতিম খানার সম্পাদক হাফেজ আল-আমিন ২০০৬ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ০৬ জন এতিমদের বিপরীতে ৭২০০০০ টাকা উত্তোলন করেছেন। তবে বছর বছর এতিমদের খাওয়া পোষাক বাবদ অর্থ উত্তলোন করলেও তার এতিম খানাটি দীর্ঘদিন ধরে খালি পরে আছে। সেখানে নেই কোন এতিমদের থাকা খাওয়া ব্যবস্থা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় মাদ্রসার শিক্ষক বলেন, প্রতিষ্ঠানটির শুরু থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত বাস্তবে কোন আসবাব পত্র ও এতিম নিবাসী কখনো ছিল না এবং বর্তমানেও নেই। স্থানীয় সচেতন যুবক মোঃ হারুন হাওলাদার বলেন, বিভাগীয় পরিদর্শন কিংবা প্রশাসনের তদারকি কালে বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক জন এতিম শিশু উপস্থিত করে দেখান। এভাবে ভূয়া নামের তালিকা দেখিয়ে পার পেয়ে যান। এমন কৌশলেই এ যাবৎ এতিমদের জন্য বরাদ্দকৃত সরকারী টাকা উত্তলন ও আন্তসাৎ করা হচ্ছে।