তীব্র শীতে দুর্ভোগে কুড়িগ্রামবাসী

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, | বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৬
তীব্র শীতে দুর্ভোগে কুড়িগ্রামবাসী
কুড়িগ্রামে তীব্র শীত ও কনকনে ঠান্ডায় দুর্ভোগে পড়েছে মানুষজন। বিশেষ করে চর-দ্বীপচর ও নদী তীরবর্তী এলাকায় শীত বেশি অনুভূত হওয়ায় কষ্টে দিনাতিপাত করছে এসব অঞ্চলের লোকজন।

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সূর্যের দেখা মিলছে না। এ অবস্থায় গরম কাপড়ের অভাবে নিম্ন আয়ের খেঁটে খাওয়া মানুষ কাজে বের হতে পারছে না। সবচেয়ে বেশি শীত কষ্টে ভুগছে বৃদ্ধ ও শিশুরা। খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন অনেকেই।

সন্ধ্যার আগেই ঘন কুয়াশার চাদরে ঢেকে যাচ্ছে গোটা জনপদ। রাত বাড়ার সাথে সাথেই ঠান্ডার তীব্রতা বাড়তে থাকে। দিনে হেড লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে যানবাহন।

কুড়িগ্রাম শহরের রিকসাচালক আফজাল হোসেন জানান, ‘কয়দিন থাকি খুব শীত পড়ছে। দুপুর পর্যন্ত ঘর থাকি বাইর হতে পারি না। গরম কাপড় নাই। দুপুরে রিকসা নিয়া বাইর হই। আয় রোজকার একেবারে নাই।’

সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের ব্রহ্মপুত্র পাড়ের বৃদ্ধ আব্দুল জলিল জানান, ‘হামরা নদী পাড়ের মানুষ। কয়েকদিন থেকে শীতের সাথে ঠান্ডা বাতাস। হাতে-পায়ে ঠান্ডা ধরে। রাত হলে হিম পড়ে। গরম কাপড় নাই। ঠান্ডায় ঘরের ভিতরও থাকা যায় না।’

কুড়িগ্রাম আবহাওয়া অফিসের উচ্চ পর্যবেক্ষক মো. জাকির হোসেন জানান, গত তিন দিন ধরে এ অঞ্চলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ থেকে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠা-নামা করছে।