পাবনায় পেঁয়াজচাষীর মাথায় হাত

পাবনা প্রতিনিধি | বৃহস্পতিবার, মার্চ ৩০, ২০১৭
পাবনায় পেঁয়াজচাষীর মাথায় হাত

পাবনার সাঁথিয়া ও বেড়া উপজেলার পেঁয়াজ চাষীরা এবার পথে বসেছেন। শিলাবৃষ্টিতে তাদের স্বপ্নের পেঁয়াজ পচে গছে। পচা পেঁয়াজ বাতাসে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। হাট-বাজারে প্রতি মণ পেঁয়াজ ১৫০ থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এতে কৃষি শ্রমিকের মজুরিও উঠছে না। আবার অনেক চাষি ক্রেতার অভাবে পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারছেন না। মঙ্গলবার সকালে বেড়া সিঅ্যান্ডবি চতুরহাট ঘুরে দেখা যায়, প্রতি মণ পেঁয়াজ ১৫০ থেকে ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হাটে আসা কৃষকেরা জানান, পেঁয়াজের ক্রেতা নেই, কার কাছে বিক্রি করবো? আতবশুকা গ্রামের কৃষক ইসহাক চার মণ পেঁয়াজ বিক্রির জন্য হাটে নিয়ে এসেছেন, কিন্তু ক্রেতা না থাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারছেন না।

কিভাবে শ্রমিকের মজুরি ও পাওনাদারদের টাকা পরিশোধ করবেন এ চিন্তায় দিশেহারা। বাড়ি ফেরার খরচের টাকা তার কাছে নেই। বেড়ার মালেক জানান, তিনি এ বছর চার বিঘা জমিতে পেঁয়াজ আবাদ করেছিলেন। শিলাবৃষ্টিতে তার সব পিঁয়াজ পচে যাচ্ছে, মজুত করে রাখতে পারছে না আবার বিক্রি করতে পারছে না।

চতুরহাটের পাইকার ও আরৎদার কালাম জানান, কেনা পেঁয়াজই তিনি সংরক্ষণ করতে পারছেন না, পচন ধরে যাচ্ছে। এই পিঁয়াজ ঢাকা নিয়ে বিক্রি করা যাবে কি না তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন। উল্লেখ্য গত ১৭ মার্চ হালকা বৃষ্টির সাথে ভারী শিলাপাতে সাঁথিয়া ও বেড়া উপজেলায় প্রায় ১৪ হাজার হেক্টর জমির অর্ধেকের বেশি পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে।