কুমিল্লায় জিতেছি কৌশলে: নোমান

নিজস্ব প্রতিবেদক, | শুক্রবার, মার্চ ৩১, ২০১৭
কুমিল্লায় জিতেছি কৌশলে: নোমান
 কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কৌশল করে জেতার কথা জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান। তিনি বলেন, সেখানে দলের কর্মীরা নৌকা মার্কার ব্যাচ বুকে নিয়ে ভোট দিয়েছে ধানের শীষে।

শুক্রবার রাজধানীতে এক আলোচনায় এ কথা বলেন নোমান। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন সুষ্ঠু হলে আমরা যেখানে ৩০ হাজার ভোটে জিততাম, সেখানে হয়ত ১০ হাজার ভোটে জিতেছি।’

বৃহস্পতিবার কুমিল্লায় ভোট চলাকালে বিএনপির প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু তিনটি কেন্দ্রের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ করেন। তবে ঢাকায় দলের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেন, কুমিল্লায় আওয়ামী লীগ তাণ্ডব চালাচ্ছে। ভোটকেন্দ্র দখল করে সেখানে সিল মারা হচ্ছে। তবে রাতে প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে বিএনপির প্রার্থী জিতেছেন ১১ হাজার ৮৫ ভোটে।

নোমান বলেন, ‘কুমিল্লায় মনিরুল হক সাক্কু বলেছেন, এখানে সিল মারা হচ্ছে, ভোটকেন্দ্র দখল করা হচ্ছে। উনি তো ওনার কেন্দ্রই বলেছেন, পারটিকুলারলি বলেছেন, একটি বুথে হচ্ছে। সব জায়গায় হচ্ছে সেটা বলেননি।’

নোমান বলেন, ‘আপনারা দুই একটি টেলিভিশনে দেখিয়েছেন ব্যালট পেপার নিয়ে সিল মারা হচ্ছে। এখন আমাদের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী যদি বলেন, সেখানে সিল মারা হচ্ছে এবং আমাদের লোকজনকে বের করে দেয়া হচ্ছে এবং বের করে দিয়েছেও, তাহলে আমরা মিথ্যা বলি নাই।’

কুমিল্লা নিয়ে ঢালাও অভিযোগের পর উঠা সমালোচনার প্রেক্ষিতে নোমান বলেন, ‘সিল মারার পরও জিতা যায়। অনেক কৌশল অনেক সময় অনেকভাবে নিতে হয়। নৌকার মার্কা বুকে নিয়ে ধানের শীষে ভোট দেয়া, এটা বাংলাদেশের অনেক আসনে হয়েছে। নৌকা বুকে নিয়ে ধানের শীষে ভোট দেয়া ছাড়া কোনো গত্যন্তর ছিল না। কারণ, পুলিশ আপনার পক্ষে নয়, নির্বাচন কমিশন আপনার পক্ষে নয়। সেখানে যারা আওয়ামী লীগের, তার যে শক্তি সে শক্তি একেকটা রাইফেলর থেকেও বেশি। কারণ সে জানে তার বিরুদ্ধে মামলা হবেনা। সে জানে জনগণ যদি তাকে ঘেরাও করে তাহলে পুলিশ তাকে প্রটেকশন করবে।’

নোমান বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে যে কথা বলা হয়েছিল, সেটা মিথ্যা নয়, সিল মারছে সেটা তো মিথ্যা নয়, একটা কেন্দ্র থেকে পুরা বেলট পেপার নিয়ে চলে আসছে এটা মিথ্যা নয়, বিভিন্ন জায়গায় বিকাল থেকে কেন্দ্র দখলের চেষ্টা হয়েছে সেটা মিথ্যা নয়।’

কুমিল্লায় ভোটের পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, ভোট সুষ্ঠু হয়েছে, তারা সেখানে সফল। তবে তার এভাবে বক্তব্য দেয়া উচিত হয়নি বলে মনে করেন নোমান। তিনি বলেন, ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বলা উচিত ছিল তারা চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তিনি কথা বলেছেন আগের প্রধান নির্বাচন কমিশনের ভাষায়।’

বর্তমান নির্বাচন কমিশন দিয়ে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয় বলেও দাবি করেন বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান।

জাতীয় গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে আলোচনায় বিএনপি নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, আবু নাসের মোহাম্মদ রহমতউল্লাহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।