হাসপাতালে কিডনি চুরি, প্রতিবেদন চেয়েও পাচ্ছে না আদালত

নাটোর প্রতিনিধি, | সোমবার, মে ১৫, ২০১৭
হাসপাতালে কিডনি চুরি, প্রতিবেদন চেয়েও পাচ্ছে না আদালত
নাটোরে রোগীর শরীর থেকে কিডনি চুরির অভিযোগে নির্দেশ পেয়েও আদালতে প্রতিবেদন দেয়নি ন্যাশনাল কিডনি ইনস্টিটিউট অ্যান্ড ডিজিস সেন্টারকে। এখন তাদেরকে আগামী ২০ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলেছে আদালত।

সোমবার নাটোরের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শামসুল আল আমীন দ্বিতীয় দফায় প্রতিবেদন দাখিলের সময়সীম বাড়িয়ে এই আদেশ দেন। এর আগে ৩০ মার্চের মধ্যে প্রতিবেদন চেয়েছিলেন বিচারক। কিন্তু উচ্চতর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর জন্য অতিরিক্ত সময় লাগার কথা বলে প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেনি ন্যাশনাল কিডনি ইনস্টিটিউট অ্যান্ড ডিজিস সেন্টার।

পরে ১৫ মের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেওয়া হলে তা দিতে পারেনি ন্যাশনাল কিডনি ইনস্টিটিউট অ্যান্ড ডিজিস সেন্টার।

গত দেড় বছর আগে পেটে ব্যাথা নিয়ে নাটোর শহরের মাদরাসা মোড়ের জনসেবা হাসপাতালে ভর্তি হন সিংড়া উপজেলার ফজলু বিশ্বাসের স্ত্রী আসমা বেগম। পরে কিডনিতে পাথর অপারেশন করান তিনি। কিন্তু অপারেশনের পর থেকে আরো অসুস্থ হয়ে পড়লে সম্প্রতি একই হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ডান পাশের একটি কিডনি না থাকার বিষয়টি ধরা পড়ে।

এরপর নাটোর, বগুড়া সহ বিভিন্ন স্থানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানো হলে কিডনি না থাকার বিষয়টি আরও স্পষ্ট হয়ে উঠে। এ অবস্থায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য অভিযুক্ত চিকিৎসক, হাসপাতালের পরিচালক ও অজ্ঞানকারী চিকিৎসকের নামসহ আরো সাত থেকে আটজন অজ্ঞাতকে অভিযুক্ত করে আদালতে মামলা করেন আসমা বেগমের স্বামী ফজলু বিশ্বাস।