মৌলভীবাজারে বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিন নিয়েই বাদীর উপর হামলা ! মহিলাসহ গুরুতর আহত-৬

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার | শনিবার, আগস্ট ১২, ২০১৭
মৌলভীবাজারে বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিন নিয়েই বাদীর উপর হামলা ! মহিলাসহ গুরুতর আহত-৬
 মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়নের আনিকেলীবড় গ্রামে পৃর্ব বিরোধের জেরধরে বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিন নিয়েই দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে বাদীর উপর হামলা চালিয়ে মহিলাসহ ৬জন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ৮ আগস্ট সকালে। আজ ১২ আগস্ট এ রির্পোর্ট লেখা পর্যন্ত গুরুতর আহত মছব্বির আলী (৩৭) অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুরুতর অন্যান্য আহতদের মধ্যে মৃতঃ চেরাগ আলীর পুত্র ছমির আলী (৪১), ছমির আলীর স্ত্রী খালেদা বেগম (৩৫), মছব্বির আলীর স্ত্রী শাহিদা বেগম (৩২), মৃতঃ ইউনুছ আলীন পুত্র শওকত আলী (৫০), তার স্ত্রী রায়না বেগম (৪৫) মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছমির আলী বাদী হয়ে আনিকেলীবড় গ্রামের  ছনু মিয়ার পুত্র মোঃ জুনাইদ আহমদ (২৫), ফরিদ মিয়া (৪২), কালু মিয়@ শহিদ মিয়া (৩৮), মইদ মিয়া (২০), হাছান মিয়া (১৯), ফরিদ মিয়ার পুত্র আলমঙ্গীর (১৮), রাংগুরিয়া গ্রামের মতলিব মিয়ার পুত্র জরিফ মিয়া (৪০), শ্রীমঙ্গল উপজেলার বরুনা গ্রামের মৃতঃ মালেক মিয়ার পুত্র মসুদ মিয়া (৪০), মৌলভীবাজার সদও উপজেলার শোনগরি গ্রামের করিম মিয়ার পুত্র মখলিছ মিয়া (৩০) কে আসামী করে মৌলভীবাজার মডেল থানায় মামলা (নং- ১১, তারিখ ঃ ০৮/০৮/২০১৭ইং) দায়ের করেছেন।  জানা গেছে- গত ১ আগস্ট সকালে গভীর রাতে ক্ষেতের আউশ ধান কেটে নেয়া হয় এবং সকালে বাড়ীতে দা, সুলফি, লাঠিসোটাসহ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র দিয়ে হামলা-ভাংচুর ও নগদ টাকা লুটপাট করা হয়। এ ঘটনায় পৈত্রিকভৃমির মালিক মৃতঃ চেরাগ আলীর পুত্র ছমির আলী বাদী হয়ে আনিকেলীবড় গ্রামের ছনু মিয়ার পুত্র ফরিদ মিয়া (৪২), কালু মিয়া @শহিদ মিয়া (৩৮), জুনাইদ মিয়া (২৫), মইদ মিয়া (১৮), ফরিদ মিয়ার পুত্র আলমগীর (১৮), ফরিদ মিয়ার স্ত্রী রাজনা বেগম (৩৭), রাঙ্গুরিয়া গ্রামের মতলিব মিয়ার পুত্র জরিফ মিয়া (৪০) ও শ্রীমঙ্গল উপজেলার বরুনা গ্রামের মৃতঃ মালেক মিয়ার পুত্র মসুদ মিয়া (৪০)কে আসামী করে মৌলভীবাজার মডেল থানায় মামলা (নং-০১, তারিখ ঃ ০২/০৮/২০১৭ইং) দায়ের করলে গত ৫ আগস্ট সকালে মৌলভীবাজার মডেল থানার এসআই মোঃ তোফাজ্জল হোসেন অভিযান চালিয়ে চুরাইকৃত আউশ ধান উদ্ধার করে স্থানীয় ইউপি সদস্যর জিম্মায় দিয়ে আসেন। এর পরদিন আসামী পক্ষের লোকজন বিজ্ঞ আদালতে জমিন প্রার্থনা করলে বিজ্ঞ আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরন করেন। এবং  গত ৭ আগস্ট বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিন নিয়েই দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে বাদীর উপর হামলা চালিয়ে মহিলাসহ ৫জনকে রক্তাক্ত জখম করেন। সর্বশেষ প্রাপ্ত সংবাদে জানা গেছে, প্রতিপক্ষের লোকজনও থানায় মামলা দায়ের করেছে।