টাঙ্গাইলে কলেজছাত্রীকে মারধর, পাঁচ যুবক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল | বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২১, ২০১৭
টাঙ্গাইলে কলেজছাত্রীকে মারধর, পাঁচ যুবক আটক
টাঙ্গাইলের সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের দুই ছাত্রীকে রড দিয়ে পেটানোর অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারদের  শাস্তির দাবিতে ওই কলেজের শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় মোখতার ফোয়ারা চত্বরে মানববন্ধন ও লাঠি নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার সন্ধ্যায় পৌর শহরের সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা ছাত্রী নিবাসের দুই ছাত্রী অটোভ্যানযোগে সখীপুরে বাজারে যাওয়ার পথে রফিকরাজু ক্যাডেট স্কুলের সামনে পৌঁছালে মুখোশপরা তিনজন পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাদের গতিরোধ করে। পরে ভ্যান থেকে তাদের জোর করে নামিয়ে রড দিয়ে পেটাতে থাকে। একপর্যায়ে ওই দুই ছাত্রী মাটিতে লুটিয়ে পড়লেও বখাটেরা তাদের পেটাতে থাকে। তাদের চিৎকারে স্থানীয় ফাহাদ ট্রেডার্সের মালিক আলী হোসেন তালুকদার এগিয়ে গেলে তারা তাকেও মারপিট করে। এক পর্যায়ে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়।
আহতরা হলেন- সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগ  স্নাতক (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের তাসলিমা সুলতানা স্বর্ণা এবং বাংলা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের সুষ্মিতা। স্বর্ণা ভালুকা উপজেলার পাচগাঁও গ্রামের আবদুল হালিমের মেয়ে এবং সুষ্মিতার বাড়ি একই উপজেলার ডাকাতিয়া গ্রামে।

এ ঘটনায় পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ডের মনোয়ার হোসেন অন্তর, ১নং ওয়ার্ডের সাকিব আল হাসান, ৪নং ওয়ার্ডের সিয়াম হোসেন, ১নং ওয়ার্ডের কাব্য এবং উপজেলার আড়াইপাড়া গ্রামের জাহিদ হাসান আগুনকে বুধবার রাতে আটক করে পুলিশ।

আহত আলী হোসেন জানান, হঠাৎ দুই ছাত্রীকে পেটাতে দেখে আমি দৌড়ে এগিয়ে যাই। এ সময় বখাটেরা আমাকেও রড দিয়ে পেটায়।

সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ রেনুবর রহমান বলেন, এ এ ঘটনায় বুধবার রাতেই থানায় মামলা করা হয়েছে এবং পাঁচ বখাটেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি গ্রেপ্তারদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শামীমা আহমেদ রীনা বলেন, গুরুতর আহত একজনের শরীরে বেশকিছু আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাকছুদুল আলম বলেন, হামলার ঘটনায় জড়িত পাঁচ যুবককে বুধবার রাতে গ্রেপ্তার করে বৃহস্পতিবার সকালে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে।