২৬ বছরেও পাইনি সন্তানের অধিকার

মোঃ ফয়সাল হাওলাদার | শুক্রবার, ডিসেম্বর ২২, ২০১৭
২৬ বছরেও পাইনি সন্তানের অধিকার
বর্তমানে অধিকাংশ বাবা-মায়ের ক্ষেত্রে চরম উদাসীনতা লক্ষ্য করা যায়, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। কোন কোন বাবা তাদের সন্তানের খোঁজ নেওয়ার মতো কোনো সময় থাকে না। যার ফলে ধীরে ধীরে সেই আদরের সন্তানটিই হয়তো কোনো খারাপ সঙ্গী জুটিয়ে নেয় কিংবা খারাপ মানুষের সঙ্গে মিশে খারাপ পথে চলে যায়। কিন্তু মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে ঘটেছে তার ব্যতিক্রম ঘটনা। শানাল নামে এক যুবক তার পিতৃ পরিচয় থেকে বঞ্চিত হয়েও খারাপ পথে পা বাড়ায়নি। তিনি অটো রিক্সা চালিয় জিবন যাপন করেও তার মনে কোন কস্ট নেই। তার জিবনে একটাই চাওয়া সে তার পিতার বৈধ সন্তান হতে চায়।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের দোসরপাড়া গ্রামে এক সন্তানের অভিযোগ ২৬ বছরেও পাইনি সন্তানের অধিকার। উপজেলার দোসরপাড়া গ্রামের মোঃ রফিউ উদ্দিনের ছেলে মোঃ শানাল এ অভিযোগ করেন। গত ১৮ই ডিসেম্বর সিরাজদিখান থানা অফিসার ইনচার্জ, লতব্দী ইউনিয়ন পরিষদ, সিরাজদিখান উপজেলা প্রেসক্লাব ও বাংলাদেশ মানবাধিকার উন্নয়ন কমিশন মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখা বরাবর তার পিতার বৈধ সন্তান হিসেবে স্বীকৃতির অধিকার আদায়ে সহযোগীতার জন্য লিখিত অভিযোগ করেন। সে উপজেলার লতব্দী উনিয়নের দোসরপাড়া গ্রামের মোঃ রফিজউদ্দিনের বড় ছেলে হিসেবে দাবী করে এ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে মোঃ শানাল জানান,  বিগত ২৭ বছর পূর্বে আমার গর্ভধারিনী মায়ের সাথে আমার পিতা মোঃ রফিজ উদ্দিন এর সাথে ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক বিবাহ হয়। আমার পিতা মাতার ঔরসতাজ সন্তান আমি। আমি জন্মের পর হতেই আমার গর্ভধারিনী মা আমাকে লালন পালন করে বড় করেছে। আমি জন্মের পর আমার পিতা মোঃ রফিজ উদ্দিন আমার মাকে ফেলে গিয়ে অন্যাথায় বিবাহ করে আমাদের ভরনপোষনের দায়িত্ব্য থেকে বঞ্চিত করে। আমি জন্মের পর হইতে জেনে এসেছি যে, মোঃ রফিজ উদ্দিন আমার জন্মদাতা পিতা। কিন্তু এখন পর্যন্ত আমার পিতা মোঃ রফিজ উদ্দিন আমাকে সন্তান হিসেবে স্বীকার করে না। আমি আপনাদের কাছে এবং এদেশের মানুষের কাছে আমার পিতার বৈধ সন্তান হিসাবে স্বীকৃতি পেতে চাই। আমি ২৬ বছর ধরে আমার পিতা আমাকে সন্তান হিসাবে স্বীকৃতি না দেওয়ায় আমি সমাজের কাছে  লাঞ্চনা ও কস্ট পেয়েছি। এদেশের প্রশাসন ও সুশিল সমাজের কাছে তার সুষ্ঠ বিচার দাবী করছি। আমাকে আমার পিতার বৈধ সন্তান হিসেবে স্বীকৃতি চাই।

এ ব্যপারে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ টায় মোঃ রফিজ উদ্দিনের বাড়ীতে সিরাজদিখান থানা পুলিশ তদন্ত করতে গেলে মোঃ রফিজ উদ্দিন বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ তার বাড়ীতে ২ ঘন্টা অপেক্ষা করে ফিরে আসে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, মোঃ শানাল সিরাজদিখান থানা, লতব্দী ইউনিয়ন পরিষদ, সিরাজদিখান উপজেলা প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ মানবাধিকার উন্নয়ন কমিশন মুন্সীগঞ্জ শাখায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ায় পুলিশ সরেজমিনে তদন্তে গিয়ে ফিরে এলে শানাল এর উপর তার পিতা মোঃ রফিজ উদ্দিন সহ তার চাচা, চাচাত ভাই তার উপর হামলা করেছে বলে জানান মোঃ শানাল। শানাল আরো জানান আমি এর বিচার চাই।
সিরাজদিখান থানার এ এস আই মোঃ সোহাগ জানান, সরেজমিনে গিয়েছিলাম রফিজউদ্দিনকে পাইনি। ২ ঘন্টা অপেক্ষার পর থানায় ফিরে আসি।