ভোলায় ওয়াচ টাওয়ারের উদ্বোধন ১৬ জানুয়ারি

ভোলা প্রতিনিধি, | শনিবার, জানুয়ারী ১৩, ২০১৮

ভোলায় ওয়াচ টাওয়ারের উদ্বোধন ১৬ জানুয়ারি

ভোলার পর্যটন শিল্পকে ব্রান্ডিং করতে ভোলার চরফ্যাসনে নির্মাণ করা হয়েছে ২২০ ফুট উচ্চতার ওয়াচ টাওয়ার। অপার সম্ভাবনাময় ‘দ্বীপের রানি’ খ্যাত সমগ্র ভোলা জেলার পর্যটনকে আকৃষ্ট করতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সু-উচ্চ এই ওয়াচ টাওয়ারটি স্থাপন করা হয়েছে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে ১৬ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ টাওয়ারটি উদ্বোধন করবেন বলে জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ও চরফ্যাশন পৌরসভার বাস্তবায়নে টাওয়ারটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় ২০ কোটি টাকা। আইফেল টাওয়ারের আদলে নির্মিত সু-উচ্চ টাওয়ারটি উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে এই অঞ্চলে পর্যটনের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে আশা করছেন নির্মাতারা।

চরফ্যাশন পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী শামিম হাসান জানান, ১৬ তালাবিশিষ্ট টাওয়ারটির ডিজাইন করেছেন কামরুজ্জামান লিটন। ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। মাটির ৭৫ ফুট নিচ থেকে ঢালাই-পাইলিং ফাউন্ডেশনের ওপর সম্পূর্ণ ইস্পাত দিয়ে নির্মিত টাওয়ারটি ৮ মাত্রার ভূমিকম্প সহনীয়। চারদিকে অ্যালুমিনিয়ামের ওপর রয়েছে ৫ মিলি ব্যাসের স্বচ্ছ গ্লাস। চূড়ায় ওঠার জন্য সিঁড়ির সঙ্গে ১৩ জন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন থাকছে অত্যাধুনিক ক্যাপসুল লিফট। পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, ওয়াচ টাওয়ারটিতে স্থাপন করা হয়েছে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বাইনোকুলার। যার সাহায্যে পর্যটকরা চর কুকরী-মুকরী, তারুয়া সৈকত এবং বঙ্গোপসাগরের একটি অংশসহ চারপাশের ১০০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা পর্যবেক্ষণ ও উপভোগ করতে পারবেন। এছাড়া বিশ্রামাগার, প্রাথমিক চিকিৎসাসহ রয়েছে খাবারের সু-ব্যবস্থা। এদিকে ওয়াচ টাওয়ার উদ্বোধনের খবরে উচ্ছ্বসিত স্থানীয় বাসিন্দারা। তারা বলছেন, ওয়াচ টাওয়ার উদ্বোধনের মাধ্যমে একদিকে এ অঞ্চলের অর্থনীতি ও মানুষের জীবনযাত্রা বদলে যাবে। অন্যদিকে সরকারি খাতে রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পাবে।