হাতিয়ায় পণ দিয়ে ১৭ জেলে মুক্ত, অপহৃত আরও ৩

নোয়াখালী প্রতিনিধি | শনিবার, ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১৮
হাতিয়ায় পণ দিয়ে ১৭ জেলে মুক্ত, অপহৃত আরও ৩
নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদীর শাখা সূর্যমুখি খাল থেকে ইঞ্জিনচালিত দুটি নৌকাসহ অপহৃত ১৭ জেলে দুই দিন পর জনপ্রতি ৩০ হাজার টাকা করে মুক্তিপণ দিয়ে মুক্তি পেয়েছে। আরও তিন জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে জলদস্যু বাহিনী।

গত বুধবার ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বড় ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে জলদস্যু বাহিনীর ২০-২৫ জন অস্ত্রধারী সদস্য মেঘনার শাখা সূর্যমুখি খালের বিভিন্ন স্থানে মাছ ধরা অবস্থায় জেলেদের উপর অতর্কিতে হামলা চালায়। দস্যুরা সাত-আটটি মাছ ধরা ট্রলারে ডাকাতি করে নগদ টাকা, মালামাল লুট করে এবং ১৭ জন জেলেকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। শুক্রবার অপহৃতদের পরিবার থেকে মুক্তিপণ নিয়ে সূর্যমুখি খাল এলাকায় তাদের ছেড়ে দিয়ে যায় দস্যু বাহিনী।

এদিকে শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকালে মেঘনা নদীর ধমারচর এলাকা থেকে তিনজনকে অপহরণ করা হয়। অপহৃতরা হচ্ছেন, নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের বাসিন্দা আনোয়ার মাঝি (৩৯), আবু তাহের (৩২) ও মো. তানজিম (২১)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকালে একদল জলদস্যু বাহিনী নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের মেঘনা নদীর ধমারচর এলাকায় জেলেদের মাছ ধরা নৌকায় অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা একটি মাছ ধরার নৌকাসহ তিন জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

কোস্টগার্ডের হাতিয়ার স্টেশন কমান্ডার লে. আসিফ মোহাম্মদ আলী আশিক ১৭ জেলেকে মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিকালে ধমারচর এলাকা থেকে পুনরায় তিন জেলে অপহরণের কথা শুনেছি। তবে অপহৃতদের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো অভিযোগ পায়নি।