পাথর কোয়ারিতে ধস, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪

সিলেট প্রতিনিধি | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০১৮
পাথর কোয়ারিতে ধস, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪
সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে পাথর কোয়ারি ধসের ঘটনায় আরও দুই শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে ওই ঘটনায় চারজনের মরদেহ উদ্ধার করা হলো।

রবিবার রাতে উপজেলার কালাইরাগ এলাকায় অবৈধভাবে পাথর তুলতে গিয়ে গর্ত ধসে এই চার শ্রমিকের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সামসুল আলম।

নিহতরা হলেন, সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার মুরাদপুর গ্রামের হযরত আলীর ছেলে মতিউর রহমান, একই এলাকার আসকর আলীর ছেলে রুহুল মিয়া, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ছলেরবন গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে আশিক আলী এবং জামালগঞ্জ উপজেলার কলকটা গ্রামের আম্বর আলীর ছেলে আতাবুর রহমান।

পুলিশ কর্মকর্তা শামসুল জানান, রবিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে কালাইরাগ এলাকায় মাটির গভীরে ৭০-৮০ ফুট গর্ত করে পাথর তুলছিলেন কয়েকজন শ্রমিক। হঠাৎ গর্ত ধসে চাপা পড়েন কয়েকজন শ্রমিক।

স্থানীয়রা রাতেই ঘটনাস্থল থেকে মতিউর রহমান ও রুহুল মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে। সোমবার সকালে আশিক আলী ও আতাবুরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আহত অবস্থায় তিনজনকে কোম্পানীঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হলেন, সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার মলিকপুরের মকসুদ আলীর ছেলে রকিবুল, তেরাব আলীর ছেলে ফিরোজ আলী ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জের আক্তারপাড়া গ্রামের কাশেম আলীর ছেলে রুহেল।

দুর্ঘটনার পর কোয়ারির লেবার সর্দার আব্দুর রউফকে আটক করেছে পুলিশ। আটক আব্দুর রউফ সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা।