দিনাজপুরে পাটকলে আগুন: ‘২০০ কোটি’ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, দিনাজপুর | বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০১৮

দিনাজপুরে পাটকলে আগুন: ‘২০০ কোটি’ টাকার ক্ষয়ক্ষতি
দিনাজপুরের বিরলে রুপালী বাংলা নামে একটি পাটকলে আগুন লাগার ঘটনায় ২০০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করছে মালিকপক্ষ। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকের ওই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন।

জানা গেছে, মিলে আগুন ছড়িয়ে পড়ার খবর পেয়ে দিনাজপুর, বোচাগঞ্জ, ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়।

মিলের জেনারেল ম্যানেজার হাফিজুর রহমান জানান, বিকাল আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে মূল মিলের ভেতরে আগুনের সূত্রপাত হয়। ওই সময় মিলের ভেতরে নারী-পুরুষসহ ৭০০ জনের মতো শ্রমিক কাজ করছিল। আগুন লাগার পরই দ্রুত তা চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। মিলে কর্মরত শ্রমিকরা পেছন দিকের চারটি দরজা ভেঙে বের হয়ে যায়।  তারপরেও আগুনে কারও প্রাণহানি ঘটেছে কি না সে ব্যাপারে তিনি নিশ্চিত করে কিছুই বলতে পারেননি।

মিলের মালিক এম আব্দুল লতিফ জানান, আগুনে পুড়ে তার প্রায় দুইশ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র পরিচালক হানিফ খান জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে পাঁচটি ইউনিট কাজ করেছেন। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

জুট মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম আব্দুল লতিফ জানান, মিলে গুদামজাত পাট ও মিলের যন্ত্রাংশসহ প্রায় তিনশ কোটি টাকার মালামাল ছিল। আগুনে দুই শ কোটি টাকার মালামাল ভস্মীভূত পুড়ে গেছে বলে তার ধারণা।

দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক আকতার হানিফ খান জানান, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার সোহেল রানা জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় লিপু, জামিনি বালা, খালেদা, আমেনা, আপন, মোতাহার, গোলাম মোস্তফা, আইয়ুব আলী, মাজেদা, রহিমা, আরজিনা ও কোরবান আলী নামে কয়েকজনকে হাসপাতলে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে লিপু ও জামিনি বালার অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাদের দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।