রোহিঙ্গাদের জন্য ভেজাল মেশানো ৬৮০০ বস্তা চাল জব্দ

বলরাম দাশ অনুপম, কক্সবাজার | রবিবার, মার্চ ১১, ২০১৮
রোহিঙ্গাদের জন্য ভেজাল মেশানো ৬৮০০ বস্তা চাল জব্দ
কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলের ফকিরপাড়ায় ভেজাল চালের বিশাল আড়তের সন্ধান পাওয়া গেছে। সেখানে থেকে জব্দ করা হয়েছে রোহিঙ্গাদের জন্য ভেজাল মেশানো ৬ হাজার ৮০০ বস্তা চাল।

ভেজাল চাল মজুতের দায়ে ইকবাল গাজী নামের এক ব্যক্তিকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদ- দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নোমান হোসেনের নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হয়।

জানা যায়, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির আওতায় ২ হাজার ১১২ মেট্রিক টন চাল সংগ্রহ করা হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে ঢাকার বাবু বাজারের সমতা ট্রেডার্স নামের একটি চাল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করা হয়। প্রতিষ্ঠানটি খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন ফকিরপাড়া এলাকায় স্থানীয় চাল ব্যবসায়ী কাজল পালের বাগানবাড়িকে গুদাম হিসেবে ভাড়া নিয়ে সেখানে ভালো চালের সঙ্গে ভেজাল ও খারাপ চাল মিশিয়ে বস্তাজাত করে আসছিল।

আজ বেলা ১১টার দিকে চট্টগ্রাম ও টেকনাফ থেকে ট্রাকে করে আনা চাল আনলোড করার সময় যানজট সৃষ্টি হলে বিষয়টি সরেজমিনে দেখতে যান স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন। এ সময় তিনি ওই বাগানবাড়িতে প্রবেশ করে ভেজাল ও খারাপ চাল মেশানোর ঘটনা দেখতে পেয়ে সদর ইউএনও ও সাংবাদিকদের খবর দেন।

পরে দুপুর দেড়টার দিকে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন ওই বাগানবাড়িতে গিয়ে ৬ হাজার ৮০০ বস্তা ভেজাল চাল জব্দ করেন এবং সেখানে দায়িত্বরত সমতা ট্রেডার্সের সুপারভাইজার ইকবাল গাজীকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদ- দেন। ইকবাল গাজীর বাড়ি বরিশালে।

ইউএনও মো. নোমান হোসেন জানান, জব্দ করা ভেজাল চালগুলো আপাতত খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের জিম্মায় রাখা হয়েছে। পরবর্তী করণীয় বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত দেবেন।