কফিনবন্দী হয়ে মায়ের কোলে ফিরল পিয়াস

বরিশাল ব্যুরো | শুক্রবার, মার্চ ২৩, ২০১৮
কফিনবন্দী হয়ে মায়ের কোলে ফিরল পিয়াস
নেপালের কাঠমান্ডুতে দুর্ঘটনায় বিধ্বস্ত বিমানের যাত্রী বরিশালের সন্তান পিয়াস রায়ের মরদেহ বাড়িতে নেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে বরিশাল নগরীর শীতলাখোলা এলাকার নিজ বাড়িতে তার মরদেহ এসে পৌঁছায়।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকার হজরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর থেকে পিয়াসের মরদেহ গ্রহণ করা হয়। পরে নেয়া হয় তার প্রিয় শিক্ষাপীঠ গোপালগঞ্জের শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে। সেখানে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানান সহপাঠী, কলেজের শিক্ষক ও কর্মচারীরা। সেখান থেকে রাত পৌনে তিনটার দিকে পিয়াসকে নেয়া হয় বরিশালে।

ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় বরিশাল মহাশশ্মান ঘাটে পিয়াসের অন্তষ্ট্যিক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।

পিয়াস গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ থেকে এ বছর এমবিবিএস শেষ বর্ষের পরীক্ষা দিয়েছিলেন। অবকাশকালীন ছুটি কাটাতে পাঁচ দিনের জন্য নেপালের উদ্দেশ্যে ১১ মার্চ বরিশাল ত্যাগ করেছিলেন তিনি। কিন্তু ১২ মার্চ কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস বাংলা বিমান বিধ্বস্তে থেমে যায় তার জীবনপ্রদীপ। ১২ দিন পর প্রিয় শহরের বাড়িতে ফিরলেন ঠিকই তবে জীবিত হয় কফিনবন্দী লাশ হয়ে।

পিয়াসের মরদেহ বরিশালে নিজ বাসায় পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই কান্নায় ভেঙে পড়েন পিয়াসের স্বজনরা। বার বার মূর্ছা যাচ্ছিলেন পিয়াসের বাবা সুখেন্দু বিকাশ রায় এবং মা পূর্ন্য রানী রায়। তাদের যারা স্বান্তনা দিতে এসেছিলেন তারাও কান্নায় ভেঙে পড়েন।

সুখেন্দু বিকাশ রায় জানান, ছেলে ভালো ডাক্তার হবে, মানুষের সেবা করবে। এই স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গেল। যা হারিয়েছি তা কেউ ফিরিয়ে দিতে পারবে না। সরকারের কাছে কিছু চাওয়া পাওয়ার নেই। দ্বিতীয় কাউকে যেন এভাবে তার সন্তানকে হারাতে না হয়।