ঠাকুরগাঁওয়ে হত্যা মামলায় আসামির মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোমবার, এপ্রিল ৩০, ২০১৮
ঠাকুরগাঁওয়ে হত্যা মামলায় আসামির মৃত্যুদণ্ড

জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে আব্দুল মালেক (৫৫) নামে প্রতিবেশী  হত্যার দায়ে এক আসামির মৃত্যুদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছে আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম আজিম উদ্দীন।

রবিবার ঠাকুরগাঁওয়ের অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. হায়দার আলী এ রায় দেন। সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের অনুমোদন সাপেক্ষে গলায় রশিতে ঝুলিয়ে রায় কার্যকর করার আদেশ দেয়া হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত আজিম জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার বীরহলি গ্রামের ছলিম উদ্দীনের ছেলে।

এ মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আসামি ইয়াকুব আলী, সলিম উদ্দীন, মসিবর রহমান, রোজিনা বেগম, সাজেদা বেগম ও মরিয়ম বেগমকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

মামলার বিরবণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ৪ জুন আজিম উদ্দীন  লোকজন নিয়ে প্রতিবেশী আব্দুল খালেকের বাড়িতে ঢুকেন এবং বাড়ির লোকজনকে গালমন্দ করেন। এসময় আব্দুল খালেকের ছোট ভাই আব্দুল মালেক বাঁধা দিতে গেলে আজিম উদ্দীন কুড়াল দিয়ে তার  মাথায় কোপ দেন। গুরুতর অবস্থায় তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ জুন রাতে আব্দুল মালেক মারা যান। এ ঘটনায় আব্দুল মালেকের বড় ভাই আব্দুল খালেক বাদী হয়ে আজিম উদ্দীনসহ ৭ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। পুলিশ মামলার তদন্ত  শেষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। আদালতে পুলিশের চার্জশিট ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষ্য প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এ রায় দেন।