চট্টগ্রামে আকবর শাহ থানার ওসি সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

রুমেন চৌধুরী, চট্টগ্রাম ডেস্ক: | মঙ্গলবার, মে ৮, ২০১৮
চট্টগ্রামে আকবর শাহ থানার ওসি সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আলমগীরসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছেআর মামলাটি দায়ের করেছেন ঐ থানা এলাকার জাকির হোসেন নামের একজন মুক্তিযোদ্ধা।

৭ মে সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম দ্বিতীয় যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মো রহমত আলীর আদালতে এ মামলাটি দায়ের করা হয়।

এ মামলায় মো ইসহাক, হাফিজুর রহমান, আলাউদ্দিন, জোহরা খাতুন, পাকিজা খাতুন, লায়লা খাতুন এবং আকবর শাহ থানার ওসি মুহাম্মদ আলমগীরকে  আসামি করা হয়েছে

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদীর আইনজীবী জাহিদ হোসেন বলেন, ‘ আকবর শাহ থানা এলাকায় বিরোধপূর্ণ জায়গা থেকে আদালতের আদেশ অমান্য করে মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেনকে উচ্ছেদের অভিযোগে দায়ের হওয়া এই মামলায় ওসিসহ বিবাদীদের কাছ থেকে ৩ কোটি ২০ লাখ ৮৬ হাজার ৫০০ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে বিবাদীদের বিরুদ্ধে নোটিশ প্রদানের নির্দেশ দিয়েছেন।

উক্ত মামলার আরজিতে উল্লেখ রয়েছে, আকবর শাহ থানার উত্তর কাট্টলি এলাকায় নিজ জায়গায় ২০১৩ সালের ৩ এপ্রিল থেকে বসবাস করে আসছেন মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন। একসময় আদালতের আদেশে তাকে ওই জায়গা বুঝিয়ে দেন এক ম্যাজিস্ট্রেট। স্থানীয় শেখ আহমদের ছেলে আলাউদ্দিন ওই জায়গার মালিকানা দাবি করে হাইকোর্টে আপিল করেন। পরে আপিল বিভাগ থেকে বিরোধপূর্ণ ওই জমিতে যে কোন ধরনের কার্যক্রমের পর স্থগিতাদেশ জারি করে। আদালতের স্থগিতাদেশ থাকার পরও গত এপ্রিল মাসের ৮ তারিখ স্থানীয় আকবর শাহ থানার ওসি তার পুলিশি জনবল দিয়ে জোরপূর্বক মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন ও তার পরিবার এবং ওখানে বসবাসরত ভাড়াটিয়াদেরকেও ঘর থেকে বের করে দিয়ে বিবাদী আলাউদ্দিনকে জমি বুঝিয়ে দেন।

আরজিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, আকবর শাহ থানার ওসিকে ঐ জমির উপর আইনি নোটিশ দেওয়া স্বত্ত্বেও  ওসি সেটার তোয়াক্কা না করে এ মামলার বিবাদী আলাউদ্দিনের পক্ষে অবস্থান নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেনের ৩ কোটি ২০ লাখ ৮৬ হাজার ৫০০ টাকার ক্ষতিসাধন করেছেন।

আকবর শাহ থানার ওসি মুহাম্মদ আলমগীর কাছে এ মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জায়গাটির উপর হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ রয়েছে আর আমার থানা আদালতের নির্দেশনা অনুসারেই কাজ করেছএখানে কারো পক্ষ নেওয়ার সুযোগ নেই কিন্তু আমাকে কেন আসামি করা হয়েছে বুঝে উঠতে পারছিনা বলে জানান ওসি।