৪২ প্রজাতির আম চাষে সফল তিনি

জেলা প্রতিনিধি | মঙ্গলবার, মে ২৯, ২০১৮
৪২ প্রজাতির আম চাষে সফল তিনি

ফেনীর সোনাগাজীতে দেশি-বিদেশি প্রায় ৪২ প্রজাতির আম চাষে সফল হয়ে রীতিমত তাক লাগিয়ে দিয়েছে আম চাষী ও গবেষক মেজর (অব:) মো. সোলায়মান।

জানা যায়, ১৯৯২ সালে সোনাগাজী মুহুরী রেগুলেটর (মুহুরী প্রজেক্ট) কাছে থাক খোয়াজের লামছি এলাকায় প্রায় ৭০ একক জমিতে সোনাগাজী অ্যাগ্রো কমপ্লেক্স নামে একটি খামার গড়ে তোলেন মেজর (অব:) সোলায়মান। এই খামারে উন্নয়ন প্রযুক্তিতে মৎস চাষ, ডেইরি ফার্ম ও দেশি বিদেশি নানান জাতের সবজী উৎপাদন করে সকলের নজরে আসেন তিনি। পরবর্তীতে এলাকার পুকুর পাড়ে দেশি-বিদেশি নানান জাতের আমের চাষ শুরু করে বর্তমানে প্রায় ৩ হাজার আম গাছের মালিক হয়েছেন। এবার তার বাগানে আমের বাম্পার ফলন হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, দেশিয় প্রায় ২০ জাতের আমের পাশাপাশি ভারত, আমেরিকা, থাইল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশের মিষ্টি মধুর আমের ভালো ফলন হয়েছে এই বাগানে। এখানে দেশিয় প্রজাতির আমের মধ্যে রয়েছে মধুরানী, হাড়িভাঙ্গা, ল্যাংড়া, মহানন্দা, গোপালভোগ, হিমসাগর, কালিয়া, কারমশি, মরিয়ম, আম্রপলি, বারি-১ থেকে ১১ পর্যন্ত। বিদেশি প্রজাতির পালমার, নামডগমাই (ব্যনানা), দেউরি, রুবি, আলপান সো, ডোসেরি, ভেনিসন, মল্লিকা, রাংগুয়াই, তোতাপুরি ইত্যাদি প্রজাতির আম। বাগানে আমের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রজাতির কাঁঠাল, কলা, পেঁপে, নারিকেল, ড্রাগন ফল, জামরুল ইত্যাদি ফলের চাষ করে সফল হয়েছেন তিনি।

মেজর (অব:) সোলায়মান জাগো নিউজকে বলেন, আমি এ বাগানের গাছগুলোতে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কোনো রাসায়নিক পদার্থের ব্যবহার করি না। কীটনাশক ব্যবহার না করায় অনেকগুলো গাছের আম নষ্ট হয়ে গেছে তারপরও আমি কীটনাশক স্প্রে করিনি।তিনি বলেন, এ বছর অনুকূল আবহাওয়া কারণে আল্লাহর রহমতে আমের ফলন খুব ভালো হয়েছে। আশা করছি প্রায় ২৫ হাজার কেজি আম বিক্রি করা সম্ভব হবে।