দুনিয়া ও পরকালের সম্পদ সংগ্রহের দোয়া ও আমল

ধর্ম ডেস্ক | সোমবার, জুলাই ২, ২০১৮
দুনিয়া ও পরকালের সম্পদ সংগ্রহের দোয়া ও আমল

আখেরাতের সম্পদ সংগ্রহের স্থান দুনিয়া। আবার দুনিয়ায় ইবাদত কবুলের জন্য শর্ত হলো সঠিক পথে জীবন পরিচালনা করা। তাই দুনিয়া ও পরকালকে সুন্দর করেআখেরাতের সম্পদ সংগ্রহের স্থান দুনিয়া। আবার দুনিয়ায় ইবাদত কবুলের জন্য শর্ত হলো সঠিক পথে জীবন পরিচালনা করা। তাই দুনিয়া ও পরকালকে সুন্দর করে সাজাতে হলে দুনিয়া সাজাতে হলে দুনিয়া মানুষের যে সব জিনিসগুলো অতি বেশি প্রয়োজন তা হলো- হেদায়েত লাভ, আল্লাহর ভয় অর্জন, সুস্থ দেহ ও মন, নৈতিক পবিত্রতা এবং স্বচ্ছলতা।

প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আল্লাহ তাআলার কাছে এ জিনিসগুলো নিয়মিত সকাল-সন্ধ্যা কামনা করতেন। প্রিয়নবির শেখানো ভাষা ও পদ্ধতিতে মুমিন মুসলমানেরও উচিত উল্লেখিত বিষয়ে আল্লাহর কাছে সাহায্য চাওয়া। হাদিসে এসেছে-

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলতেন-

اَللَّهُمَّ اِنِّى أَسْألُكَ الْهُدَى وَالتُّقَى وَالْعَفَافَ وَالْغِنَى

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকাল হুদা; ওয়াত তুক্বা; ওয়াল আ’ফাফা; ওয়াল গেনা।

অর্থ : হে আল্লাহ আমি আপনার কাছে হেদায়েত কামনা করি এবং আপনার ভয় তথা পরহেজগারি কামনা করি এবং আপনার কাছে সুস্থতা তথা নৈতিক পবিত্রতা কামনা করি এবং সম্পদ তথা সামর্থ্য কামনা করি। (মুসলিম, তিরমিজি, ইবনে মাজাহ ও মুসনাদে আহমদ)

প্রিয়নবির হাদিসে বর্ণিত এ দোয়া মুসলিম উম্মাহর জন্য যেমন গুরুত্বপূর্ণ। তেমনি এ দোয়ার বরকত লাভে দ্বীন ও ইসলামের যাবতীয় বিষয়াবলীর প্রতি যথাযথ যত্নবান হতে হবে।

কারণ আল্লাহর ইচ্ছা ব্যতিত বান্দার কোনো চাওয়াই পূর্ণ হতে পারে না। তাই সকাল-সন্ধ্যা আল্লাহর কাছে উল্লেখিত দোয়ার মাধ্যমে প্রার্থনা করার পাশাপাশি ইবাদত-বন্দেগি, ব্যবসা-বাণিজ্য, চাকরি-বাকরিসহ যাবতীয় কাজে ইসলামের হুকুম আহকাম পালন করা জরুরি। তবেই কাঙ্ক্ষিত সফলতা লাভ করতে মুমিন মুসলমান।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে সকাল-সন্ধ্যায় হাদিসে বর্ণিত দোয়ার মাধ্যমে হেদায়েত, তাকওয়া, সুস্থতা এবং ধন-সম্পদ অর্জনের শক্তি-সামর্থ্য অর্জন করার তাওফিক দান করুন। হাদিসের আবেদন অনুযায়ী আমল করে দুনিয়ার সব মুখাপেক্ষিতা থেকে নিজেকে হেফাজত করার তাওফিক দান করুন। আমিন।