পূর্বধলায় উপবৃত্তির টাকা উত্তোলনে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ

মোঃ এমদাদুল ইসলাম পূর্বধলা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি: | শনিবার, জুলাই ৭, ২০১৮
পূর্বধলায় উপবৃত্তির টাকা উত্তোলনে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ

নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার হোগলা ইউনিয়নের সাধুপাড়া বাজারের শিওর ক্যাশ এজেন্ট রিপন টেলিকম’র রিপনের বিরুদ্ধে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তির টাকা উত্তোলনে ২০-৪০ টাকা কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পূর্বধলা উপজেলার ১ শত ৭৫ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তির টাকা রূপালী ব্যাংকের শিওর ক্যাশ এজেন্টদের মাধ্যমে প্রদান করেছে সরকার। এই টাকা বিভিন্ন বিদ্যালয়ের আশপাশের বাজারের শিওর ক্যাশ এজেন্টদের মাধ্যমে কমিশন দিয়ে তুলতে হয়।

অভিভাবক মো: একতাতুল ইসলাম ৬০০/- টাকা তুলতে গিয়ে ২০ টাকা কমিশন করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সাধুপাড়ার আলী হোসেন মন্ডল লিখিত অভিযোগ করেছেন। তার কাছ থেকে রিপন টেলিকম’র রিপন মিয়া তার নিকট থেকে ১২০০/- টাকা উত্তোলনের জন্য ৪০/- টাকা নিয়েছেন। এছাড়া একই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জলিল, মো: সবুজ মিয়া, মো: মিছির উদ্দিন, মো: সিদ্দিকুর রহমান, মো: রফিকুল ইসলাম, মো: সাইফুল ইসলাম তারা জনপ্রতি ২০-৩০ টাকায় উত্তোলন করেছেন। সাধুপাড়া বাজারের রিপন টেলিকম’র মালিক রিপন মিয়া দুই একজনের নিকট থেকে অর্থ গ্রহনের সত্যতা স্বীকার করে বলেন মেসেজ পাঠানোর জন্য বা পিন নষ্ট হওয়ার কারনে কিছু টাকা নিতে হয়।

তাও অভিভাবকরা খুশি হয়ে দিয়ে যান। জোর করে বা বাধ্যতামূলক কারো নিকট থেকে অর্থ নেওয়া হয় না। গত (৬ জুলাই) সরেজমিন তদন্ত করে দেখা যায় অনেক শিওর ক্যাশ এজেন্ট অর্থ নেয় আবার অনেকেই কোন টাকা নেয় না। তারা বলেছেন, অভিভাবকরা খুশি হয়ে ১০-১৫ টাকা করে দিয়ে যান। জোর করে বা বাধ্যতামূলক কারো নিকট থেকে অর্থ নেওয়া হয় না।

কোন কোন এজেন্ট বলেছেন, প্রতি হাজারে মাত্র ৪ টাকা কমিশন পাই যা খুবই কম। এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করা হয়েছে। তারা আশা করছেন দ্রুতই এই সমস্যার সমাধান হবে। শিওর ক্যাশ কর্তৃপক্ষ ময়মনসিংহ আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মো: খাইরুল ইসলাম জানান, এজেন্টদের হাজারে বর্তমানে ৫ টাকা করে দেওয়া হয়। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তি প্রদানে উপর প্রাপ্ত কমিশন নিয়মিত প্রদান করছি।

এর বাইরে কোন অর্থ বা কমিশন গ্রাহকদের নিকট থেকে নেয়ার বিধান নেই। কোনো এজেন্ট’র বিরুদ্ধে অর্থ নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেলে তাৎক্ষনিক তার এজেন্টশীপ বাতিল করা হবে। এবং তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পূর্বধলা উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মো: শাহিন মিয়া জানান, রূপালী ব্যাংক শিওর ক্যাশ এজেন্টদের সরকারি ভাবে সুযোগ সুবিধা দেয়া হচ্ছে। এজেন্টদের অর্থ বা কমিশন নেয়ার কোন বিধান নেই। এর পরেও কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।