গাজীপুরের পুলিশ কর্মকর্তার বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক) | বুধবার, জুলাই ১১, ২০১৮
গাজীপুরের পুলিশ কর্মকর্তার বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার
এক মাস আগে নিখোঁজের পর গাজীপুরের কালীগঞ্জে জঙ্গল থেকে পুলিশের (ঢাকা) বিশেষ শাখার পরিদর্শক মামুন ইমরান খানের (৪২) আগুনে পোড়া বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

১০ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের উলুখোলা এলাকার রায়েরদিয়া গ্রামের একটি জঙ্গল থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।
 
বিকেলে নিহত পুলিশ কর্মকর্তার পরনের প্যান্ট ও কোমরের বেল্ট দেখে পরিবারের লোকজন লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছেন বলে নিশ্চিত করেন কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবুবকর মিয়া।
 
ওসি জানান, স্থানীয়রা দুপুরে উপজেলার রায়েরদিয়া রাস্তার পাশের একটি জঙ্গলে বস্তাবন্দী লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তারা স্থানীয় উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেন। পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত লাশটি আগুনে পোড়া অবস্থায় এবং চেহারা বিকৃত ছিল। এ জন্য প্রথমে বয়স ও পরিচয় নিশ্চিত করা যায়নি। পরে নিহত পুলিশ কর্মকর্তার পরনের প্যান্ট ও কোমরের বেল্ট দেখে পরিবারের লোকজন লাশের পরিচয় নিশ্চিত করেন।
 
ওসি আবুবকর আরও জানান, নিহত পুলিশ কর্মকর্তা ঢাকায় এসবি স্কুল অব ইনটেলিজেন্সে পরিদর্শক পদে দায়িত্বে ছিলেন। ঢাকার নাবাবগঞ্জের মোঃ আজাহার আলীর ছেলে তিনি। গত ৮ জুন সন্ধ্যার পর রাজধানীর সবুজবাগ এলাকা থেকে নিখোঁজ হন মামুন ইমরান খান। মামুন ২০০৫ সালে পুলিশে যোগ দেন বলে তিনি জানান।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ গোলাম সবুরসহ ঢাকার স্পেশাল ব্রাঞ্চের পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি ঃ
এক মাস আগে নিখোঁজের পর গাজীপুরের কালীগঞ্জে জঙ্গল থেকে পুলিশের (ঢাকা) বিশেষ শাখার পরিদর্শক মামুন ইমরান খানের (৪২) আগুনে পোড়া বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

১০ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের উলুখোলা এলাকার রায়েরদিয়া গ্রামের একটি জঙ্গল থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।
 
বিকেলে নিহত পুলিশ কর্মকর্তার পরনের প্যান্ট ও কোমরের বেল্ট দেখে পরিবারের লোকজন লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছেন বলে নিশ্চিত করেন কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবুবকর মিয়া।
 
ওসি জানান, স্থানীয়রা দুপুরে উপজেলার রায়েরদিয়া রাস্তার পাশের একটি জঙ্গলে বস্তাবন্দী লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তারা স্থানীয় উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেন। পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত লাশটি আগুনে পোড়া অবস্থায় এবং চেহারা বিকৃত ছিল। এ জন্য প্রথমে বয়স ও পরিচয় নিশ্চিত করা যায়নি। পরে নিহত পুলিশ কর্মকর্তার পরনের প্যান্ট ও কোমরের বেল্ট দেখে পরিবারের লোকজন লাশের পরিচয় নিশ্চিত করেন।
 
ওসি আবুবকর আরও জানান, নিহত পুলিশ কর্মকর্তা ঢাকায় এসবি স্কুল অব ইনটেলিজেন্সে পরিদর্শক পদে দায়িত্বে ছিলেন। ঢাকার নাবাবগঞ্জের মোঃ আজাহার আলীর ছেলে তিনি। গত ৮ জুন সন্ধ্যার পর রাজধানীর সবুজবাগ এলাকা থেকে নিখোঁজ হন মামুন ইমরান খান। মামুন ২০০৫ সালে পুলিশে যোগ দেন বলে তিনি জানান।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ গোলাম সবুরসহ ঢাকার স্পেশাল ব্রাঞ্চের পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।