পদ্মায় স্পিডবোট উল্টে নারী ইউপি সদস্য নিহত

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি, | রবিবার, জুলাই ১৫, ২০১৮

পদ্মায় স্পিডবোট উল্টে নারী ইউপি সদস্য নিহত
মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটের কাছে রবিবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে পদ্মায় ১৮ যাত্রীবোঝাই স্পিডবোট উল্টে এক নারী যাত্রী নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত এক যাত্রী। অপর ১০ যাত্রী আহত হয়েছেন।

নিহত যাত্রী মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার হাসাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সুফিয়া বেগম (৬০)। তার স্বামীর নাম সেলিম শেখ।

আহতদের ছয়জনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকি আহতদের প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন শ্রীনগরের জালাল সরকার (৫০)। তিনি কেয়টকালীর বাবর আলীর ছেলে। ঘটনাস্থলে ফায়াস সার্ভিস ও ডুবরি তলব করা হয়েছে।

লৌহজং থানার ওসি লিয়াকত আলী জানান, শিমুলিয়া ঘাট থেকে কাঁঠালবাড়ি যাওয়ার পথে ফেরির সঙ্গে থাক্কা লেগে স্পিডবোটটি উল্টে যায়। ফেরি ছাড়াও আশপাশের ফেরি, স্পিডবোট ও নৌযান দ্রুত যাত্রীদের উদ্ধার করে। তবে এখনও অন্তত এক যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির এজিএম খন্দকার শাহ মো. খালেদ জানান, শিমুলিয়া ঘাটে আসার পথে মাঝপদ্মায় স্পিডবোটটি ফেরি টাপলুর সাথে এসে ধাক্কা খায়। এ সময় কাছাকাছি ছিল ফেরি কপতী। মাইকিং করে বয়া ফেলে এমনকি স্টাফরা ঝাঁপিয়ে পড়ে পদ্মা থেকে কয়েকজনকে উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, দুর্ঘটনাস্থলটি মূল পদ্মার মাঝামাঝি স্থানে। এখানে প্রবল স্রোত বইছে। সেখানেই স্পিডবোটটি গিয়ে ফরির সাথে ধাক্কা খেয়ে পদ্মায় ছিটকে পড়ে। তিনি আরও জানান, দুর্ঘটাস্থলটি শিমুলিয়া ঘাট থেকে প্রায় ৫০০ মিটার দূরে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মকসুদা লিমা জানান, নিহত সুফিয়া খাতুনের লাশ উদ্ধার করে শিমুলিয়া ঘাটে রাখা হয়েছে। স্বজনরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। লাশের সুরতহাল করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা জানান, দুর্ঘটনাস্থলে ডুবরি তলব করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া আহত যাত্রীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ব্যবস্থা করা হয়েছে।