কোটা আন্দোলন নেতা ফারুক হাসানের জামিন আবেদন নাকচ

আদালত প্রতিবেদক | সোমবার, জুলাই ১৬, ২০১৮
কোটা আন্দোলন নেতা ফারুক হাসানের জামিন আবেদন নাকচ

কোটা আন্দোলনে নাশকতার অভিযোগের মামলায় সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেনের জামিনের আবেদন নাকচ করেছেন আদালত।

রবিবার দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট কায়সারুল ইসলাম জামিন আবেদনের শুনানি শেষে ওই নাকচ আদেশ দেন।

এর আগে শনিবার দুই দিনের রিমান্ড শেষে ফারুকসহ অপর দুই আসামিকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন ডিবি পুলিশের পরিদর্শক বাহাউদ্দিন ফারুকী। গত ১০ জুলাই ফারুকসহ অপর দুই আসামিকে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিল আদালত।

গত ৩ জুলাই ফারুকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই দিনই আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পরদিন তাদের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, উপাচার্যের বাসভবনে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র সিকিউরিটি অফিসার এসএম কামরুল আহসান বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ৮ এপ্রিল কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় আন্দোলনকারীরা রাস্তা বন্ধ করে টায়ার ও আসবাবপত্র জ্বালানোসহ নাশকতায় জড়িত ছিলেন এবং পুলিশকে মারধর ও কর্তব্য কাজে বাধা দেন। ওই ঘটনায় শাহবাগ থানায় আরও তিনটি মামলা করে পুলিশ।

ফারুক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্বের শিক্ষার্থী এবং সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের আবাসিক ছাত্র। তার বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলায়।