সাড়ে তিন বছরের শিশুকে হত্যা : আদালতে কিশোরের ‘স্বীকারোক্তি’

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক) | শুক্রবার, জুলাই ২০, ২০১৮
 সাড়ে তিন বছরের শিশুকে হত্যা : আদালতে কিশোরের ‘স্বীকারোক্তি’
গাজীপুরে সাড়ে তিন বছর বয়সী শিশু খাদিজা আক্তারকে হত্যা মামলায় গ্রেফতার কিশোর বায়োজিদ (১৫) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। জয়দেবপুর থানার ওসি মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, “ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে খাদিজাকে হত্যা করেছে বলে গাজীপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ হামিদুল ইসলামের আদালতে ১৮ জুলাই বুধবার বিকালে ওই কিশোর জবানবন্দি দেয়।”   জবানবন্দি নেওয়া শেষে বিচারক তাকে কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বারবৈকা এলাকার হায়দার আলীর মেয়ে খাদিজা মঙ্গলবার বিকালে বাসা থেকে খেলতে বেরিয়ে নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখঁজির পর বাড়ি থেকে কিছু দূরে একটি পরিত্যক্ত জমি থেকে রাতে স্বজনরা তার লাশ উদ্ধার করে। ওই রাতেই খাদিজার বাবা হায়দার আলী বাদী হয়ে ওই কিশোরকে আসামি করে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করলে রাতেই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওসি মোঃ আমিনুল বলেন, ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরের বাড়ি গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায়। সে বারবৈকা এলাকায় খাদিজার বড় চাচা মোঃ হারুনের বাড়িতে থাকতো; হারুন সম্পর্কে ছেলেটির ফুপা হন। খাদিজার লাশের সুরুতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর জয়দেবপুর থানার এসআই মোঃ আব্দুর রহমান বলেন, খাদিজার নাক, পায়ু ও যোনীপথ রক্তাক্ত এবং নিচের ঠোঁটে কাটা চিহ্ন রয়েছে।

পরে লাশ গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাদিকুল হক তুহিন খাদিজাকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানান।