দাম্পত্য কলহ স্বাস্থ্যের জন্য কতটা ক্ষতিকর?

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | শুক্রবার, জুলাই ২০, ২০১৮
দাম্পত্য কলহ স্বাস্থ্যের জন্য কতটা ক্ষতিকর?
দাম্পত্যে নিয়মিত কলহ এবং অশান্তি আপনার স্বাস্থ্যের গুরুতর ক্ষতি করতে পারে, জানিয়েছেন মনস্তত্ববিদরা।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব নেভাডা এবং মিশিগানের গবেষকরা ৩৭৩ জন দম্পতির ওপর পরীক্ষা করেন। এক্ষেত্রে যেসব দম্পতি বেশি ঝগড়া করে তাদের স্বাস্থ্য অন্যদের তুলনায় খারাপ হয় কিনা, তা দেখা হয়।  দেখা যায়, ঝগড়া করাটা স্বামী-স্ত্রী উভয়ের জন্যই ক্ষতিকর।  এমনকি একে অপরের সাথে মতের মিল থাকলে দাম্পত্যের প্রথম দিকে স্বাস্থ্যগত সুবিধা পাওয়া যায়।

গবেষকরা দম্পতিদের স্বাস্থ্যের ব্যাপারে কিছু প্রশ্ন করেন। স্বাস্থ্যগত কারণে কর্মক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হয়েছে কিনা, তারা পছন্দের কাজগুলো করার মতো যথেষ্ট সুস্থ কিনা, তাদের ঘুমে কোনো সমস্যা আছে কিনা, তাদের নার্ভাসনেসের সমস্যা আছে কিনা এবং মাথাব্যথা হয় কিনা জিজ্ঞেস করা হয়।

ফলাফলে গবেষকরা জানান, ধূমপান এবং মদ্যপানের মতোই দাম্পত্যে বেশি ঝগড়া এবং অশান্তি মানুষের স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে।

অনেক গবেষণাতেই দাবি করা হয় বিয়ে করাটা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো এবং একাকী মানুষের তুলনায় বিবাহিতরা বেশিদিন বাঁচেন।  কিন্তু গবেষক রোজি শ্রাউট জানান, শুধুমাত্র বিয়ের কাগজে সাইন করলেই ভালো স্বাস্থ্য পাওয়া যাবে, এমনটা নয়। বরং স্বামী ও স্ত্রী একে অপরের যত্ন নিলেই তারা সুস্থ থাকেন।

শ্রাউট জানান, ঝগড়া থেকে বাড়ে শরীরের বিভিন্ন সমস্যা, যেমন প্রদাহ, ক্ষুধামন্দা এবং স্ট্রেসের আধিক্য। এতে হৃৎপিণ্ড থেকে শুরু করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত হয়। 

গবেষণায় দেখা যায়, যত বেশি ঝগড়া হয়, স্বামীর স্বাস্থ্য তত বেশি খারাপ হয়। একই বিষয় নিয়ে বারবার ঝগড়া করতে থাকলে উভয়েরই স্বাস্থ্য খারাপ হয়।

এ গবেষণার ব্যাপারে ইউনিভার্সিটি অব এসেক্সের মনস্তত্ত্বের গবেষক ভেরোনিকা লামার্ক জানান, একটা-দুটো ঝগড়ায় তেমন কোনো ক্ষতি হয় না। কিন্তু বছরের পর বছর ঝগড়া চলতে থাকলে নিঃসন্দেহে তা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এ কারণে ঝগড়ার ব্যাপারে শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের দিকে নজর দিতে হবে।

সূত্র: দ্যা গার্ডিয়ান