শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষকের বিচার দাবি শিক্ষার্থীদের

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | রবিবার, জুলাই ২৯, ২০১৮
শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষকের বিচার দাবি শিক্ষার্থীদের

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলায় ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে রবিরার দুপুরে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষকের বিচার ও অপসারণ দাবি করে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

উপজেলা পরিষদের প্রধান ফটকের সামনে দুই ঘণ্টাব্যাপী অবরোধে অচল হয়ে পড়ে মহাসড়কটি। তদন্ত সাপেক্ষে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার করা হবে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার এমন আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় ছাত্রীরা।

জানা যায়, ঘাটাইল এস.ই. বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক এনামুল হক শিক্ষকতার পাশাপাশি সৃষ্টি কোচিং সেন্টার নামে একটি নাইট কোচিংয়ের পরিচালক ও শিক্ষক। গত ২৫ জুলাই ঘাটাইল বাজারস্থ কালী মন্দিরের পেছনে সৃষ্টি কোচিংয়ে পড়তে যায় তারই নিজ প্রতিষ্ঠানের ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রী। বেশ কিছুদিন আগে থেকেই শিক্ষক এনামুলের কুনজর পড়ে ওই ছাত্রীর উপর। ছাত্রীটি ঘটনার রাতে অন্য সকল ছাত্র-ছাত্রীর মতোই কোচিং ক্লাসে অংশ নেয়। কোচিং ক্লাস চলাকালে এনামুল পাশের একটি নির্জন কক্ষে তার গায়ে হাত দেয়। ছাত্রীটি শিক্ষকের এমন আচরণে ভীত হয়ে বিষয়টি ওই রাতেই বাবা-মাকে জানায়।

ঘাটাইল এস.ই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বুলবুলি বেগম জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর আমরা তাকে পরিচালনা পরিষদের জরুরি সভায় বিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম থেকে তাৎক্ষণিক অব্যহতি দিয়েছি।

অভিযুক্ত শিক্ষক এনামুলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিলরুবা আহমেদ জানান, এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্তে তিনি দোষী সাব্যস্ত হলে কঠোর আইনানুগ শাস্তি দেয়া হবে।