হালুয়াঘাটে জেলা পরিষদ নেত্রীর খোঁজে পুলিশ

ওমর ফারুক সুমন, হালুয়াঘাটঃ | সোমবার, আগস্ট ৬, ২০১৮
হালুয়াঘাটে জেলা পরিষদ নেত্রীর খোঁজে পুলিশ

হালুয়াঘাট উপজেলার ৬নং বিলডোরা ইউনিয়নের বিলডোরা গ্রামের মান্নান চৌধরীর পুত্র  রফিকুল্লাহ চৌধুরী মানিক (২৫) নামে এক যুবককে  সন্রাসী কায়দায় কুপিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টার মামলায় বিতর্কিত নেত্রী শিমুলকে গ্রেফতার করা হবে বলে জানান হালুয়াঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার। শিমুলের পুরো নাম আছমাউল হোসনা শিমুল (৪২)।

সে হালুয়াঘাট উপজেলার বিলডোরা কাজিয়াকান্দা গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী। একইসাথে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের বিতর্কিত সদস্য। এ ঘটনায় শিমূলকে প্রধান আসামীসহ ৪ জনকে এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামী করে হালুয়াঘাট থানায় ১৪৩, ৩৪১, ৩২৩, ৩২৪, ৩২৫, ৩২৬, ৩০৭, ৩৭৯, ৫০৬(২) ধারায় মামলা দায়ের করেন আহত যুবক মানিকের বড় ভাই অলি উল্লাহ চৌধুরী। শিমুলকে প্রধান আসামী করেছেন তিনি। এছাড়া কাজিয়াকান্দা গ্রামের শিমুলের স্বামী নজরুল ইসলাম (৪০), হারেজ আলী (৩৮), আঃ মজিদ (৫৮) এদেরকেও আসামী করা হয়েছে। অজ্ঞাত রয়েছে ৫/৬ জন।  মানিক ময়মনসিংহ  মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।তার দুই হাতের হাড় ভেঙ্গে গিয়েছে বলে জানান মামলার বাদী অলি উল্লাহ চৌধরী।  

সুত্রে জানা যায়, গত  শুক্রবার রাত সারে এগারোটায় ভাড়াটিয়া মোটর সাইকেল যোগে ব্যবসায়ীক কাজ শেষে মানিক তার নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে শিমূলের বাড়ির সামনে পাকা রাস্তায় আসা মাত্রই দড়ি টানিয়ে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করা হয়। এ সময় মোটরসাইকেল থামিয়ে চালক দৌড়ে পালিয়ে গেলেও মানিকের মাথা লক্ষ্য করে শিমুল দা দিয়ে কোপায়। এতে মানিক মাটিতে পরে গেলে তাকে শিমুলের সাথে আসা বাহিনীর সদস্যরা এলোপাথারী কুপিয়ে রক্তাক্ত করে। এতে দুই হাতের হাড় ভেঙ্গে যাই ঐ যুবকের। এবং মাথায় গুরুতর জখম হয়। (চলবে)
ওমর ফারুক সুমন