ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্মান নিয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনা

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | বুধবার, আগস্ট ৮, ২০১৮
ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্মান নিয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনা

নেত্রকোনা পৌর শহরের উত্তর সাতপাই মহল্লায় মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচয়ে বড় ইবাদত বন্দেগী আদায়ের জন্য বাইতুল জান্নাত জামে মসজিদ মসজিদ থাকা সত্বেও হঠাৎ করে কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের ধর্মীয় স্থাপনা নির্মানের পায়তারা করায় এখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে । এর প্রতিবাদে তারা গতকাল মঙ্গলবার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, পৌর সভার মেয়র এবং জেলা প্রেসক্লাবে স্মরকলিপি প্রদান করেছে। এছাড়া প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নেত্রকোনার এমপি যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়ের বরাবর ও স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।

নেত্রকোনা এন আকন্দ কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মুহাম্মদ আবদুল বাতেনসহ নেত্রকোনর বিভিন্ন মাদ্রাসাও মসজিদের ইমামগন গতকাল মঙ্গলবার নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবে এসে লিখিত ভাবে সাংবাদিকদের বলেন, নেত্রকোনার বিতর্কিত কাদিয়ানী সম্পড্রদায়ের আব্দুল মজিদ নামে এক ব্যক্তি মুসলিম সম্প্রদায়ের পুরানো মসজিদের নিকটে কাদিয়ানী ধর্মীয় স্থপনা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়ায় মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। এই ব্যাক্তি মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকদের অনুভুতিতে আঘাত দিয়েছেন। তাই এই স্থাপনা যাতে নির্মিত না হতে পারে সে জন্য তারা সরকারও স্থানীয় প্রশাসন ও সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন, হেফাজতে ইসলামের জেলা আমীর মুফতি তাহের কাশেমী, অধ্যাপক ইসমাইল মিয়া, এবিএম আবদুল হাদি ফরাজীসহ মাদ্রাসার শিক্ষক ও বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী।
এই ব্যাপারে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারের অফিসে যোগাযোগ করা হলে তারা এই ব্যাপারে স্মারকলিপি পেয়েছেন বলে জানান এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে আশ^াস প্রদান করেন।