আবার এক এগারোর ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, | বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৬, ২০১৮
আবার এক এগারোর ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন কাদের
২০০৭ সালের মতো আবার জরুরি অবস্থা জারির মতো পরিস্থিতি তৈরির ষড়যন্ত্র টের পেয়েছেন ওবায়দুল কাদের। ১১ বছর আগের মতো একটি গণমাধ্যম ও একটি দলের উস্কানিতে শেখ হাসিনা সরকার হটানোর ষড়যন্ত্র চলছে বলে সতর্ক করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের শোক দিবসের আলোচনা সভায় এ কথা জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

কাদের বলেন, ‘এক এগারোর ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি। যারা রাজনৈতিক বিরাজনীতিকরণ করতে চেয়েছিল, তাদের সহযোগী ছিল মিডিয়ার একটি অংশ। সেই মিডিয়া একটি দলের উস্কানিতে শেখ হাসিনা সরকার হটানোর ষড়যন্ত্রে নেমেছে। তারাই অপপ্রচার চালাচ্ছে।’

‘তারাই শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে আক্রান্তদের আক্রমণকারী হিসেবে উপস্থাপন করেছে। এমনকি আমাদের দলের যার চোখ নষ্ট হয়ে গেছে তাকে শিক্ষার্থী হিসেবে উপস্থাপন করে সংবাদ প্রচার করেছে।’

বিএনপি আমলে নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বাধীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে ২০০৭ সালের ২২ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জন করে আওয়ামী লীগ। তবে বিএনপি একতরফা নির্বাচনের চেষ্টা করে। আর এই অবস্থায় দেশে তৈরি হওয়া চরম বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিতে হস্তক্ষেপ করে সেনাবাহিনী। ১১ জানুয়ারি জরুরি অবস্থা জারি করেন ইয়াজউদ্দিন আহমেদ।

এরপর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান হিসেবে শপথ নেন ফখরুদ্দিন আহমেদ। আর ৯০ দিনের মেয়াদের বদলে তারা ক্ষমতায় থাকে প্রায় দুই বছর।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ১৫ আগস্ট জন্মদিন পালনের বিষয়টি উল্লেখ করে কাদের বলেন, ‘ভুয়া জন্মদিন পালন করা একটা পাপ, একটা অপরাধ। বাংলাদেশে এই ধরনের নোংরা দৃষ্টান্ত যারা স্থাপন করেছে তারাই আজ অগণতান্ত্রিকভাবে সরকার হটানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে।’

বিএনপি নেত্রীর সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘স্কুলে, বিবাহে, পাসপোর্টসহ মোট পাঁচটি জন্ম দিবস। এখন তারা জন্মদিন পালন করছে ফরমেট চেইঞ্জ করে। তাদের আমরা ঘৃণা করি, ধিক্কার জানাই।’

বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিরিয়ে এনে শাস্তি কার্যকর করা হবে বলেও জানান কাদের।

‘যুক্তরাষ্ট্রে যেই খুনি (আবদুর রশিদ) অবস্থান করছে, তাকে সরানোর জন্য ট্রাম্প প্রশাসন সবুজ সংকেত দিয়েছে। আর কানাডায় (নুর চৌধুরী) মৃত্যুদণ্ড না থাকায় আইনি জটিলতার কারণে এই মুহূর্তে আনা যাচ্ছে না।’

ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক তাসলিমা আক্তারের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক সামসুন্নাহার চাপা, কেন্দ্রীয় সদস্য মারুফা আত্তার পপি, ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।