ব্যাপক সচ্ছতায় হয়েছে ময়মনসিংহে পুলিশের রিক্রুটিং

বদরুল আমীন, ময়মনসিংহ | মঙ্গলবার, জুলাই ৯, ২০১৯

ব্যাপক সচ্ছতায় হয়েছে ময়মনসিংহে পুলিশের রিক্রুটিং
ময়মনসিংহে এক সময় নিম্ন আয়দের পুলিশ এর চাকরী পাওয়া ছিল মাথায় হাত। “অর্থ ছাড়া চাকুরী” সেটা ছিল স্বপ্ন। কিন্তু সেই স্বপ্নকে বাস্তবে পরিনত করতে নিরলস প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছেন ময়মনসিংহের সুযোগ্য পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন।

এসপি শাহ আবিদ হোসেন সোনার হরিণখ্যাত পুলিশ কনস্টেবল পদে ১০০ টাকার ট্রেজারি চালান করেই মিলবে চাকুরী, সেটার ব্যবস্থা করেছেন। পুরুষ ও মহিলা মিলে মোট ২৫৭ জন যোগ্যতা ও সম্পূর্ন স্বচ্ছতার ভিত্তিতে কনস্টেবল পদে চাকুরীর সুযোগ করে দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ৪১ পূরণের লক্ষমাত্রা নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগকে ঢেলে সাজানোর জন্য সম্পূর্ণ শতভাগ স্বচ্ছতাপূর্ন নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পুলিশ বিভাগকে কঠুর নির্দেশ প্রদান করেছেন।

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার আইন সেবা সবার অধিকার’। বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষকে নিরাপত্তা ও সামাজিক গঠনমূলক কর্মকান্ডে পুলিশ বিভাগকে কাজ করার আহবান জানান। আধুনিক তথা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন পূরনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগের ভূমিকা অত্যন্ত প্রয়োজন।
সেই লক্ষ্য নিয়ে গত ১’জুলাই/২০১৯ ইং তারিখ সকাল ৯ ঘটিকায় ময়মনসিংহ পুলিশ লাইন্স মাঠে নারী ও পুরুষ পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগ্যতা যাচাই মূলক পরীক্ষা পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেনের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয়। এতে কমপক্ষে ৪/৫ হাজার নারী-পুরুষ অংশ গ্রহন করে।
উক্ত পরীক্ষাতে নারী ও পুরুষ কনস্টেবল পদের আগ্রহী প্রার্থীদের শারীরিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণের শর্ত সাপেক্ষে সম্পূর্ণ মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে অত্যন্ত স্বচ্ছতায় এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।

পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন বলেন, কনস্টেবল পদের জন্য নারী ও পুরুষ প্রার্থীগণ সরকার নিধারিত ১শত টাকার ট্রেজারি চালান ও ৩ টাকার ফরমের বাইরে অতিরিক্ত কোন ধরনের আর্থিক লেনদেন করে প্রতারিত না হওয়ার জন্য সকল চাকুরী প্রত্যাশীদের সতর্ক করে দিয়েছেন । এর পূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও মাইকিং প্রচারনা চালিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ বাবদ কোন জালিয়াতি চক্র, পুলিশ সদস্য, রাজনৈতিক নেতা বা অন্য কোন ব্যক্তির সঙ্গে কোন প্রকার আর্থিক লেনদেন করে প্রতারিত না হতে সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন।

পুলিশ বিভাগের ধীরতাপূর্ন সাহসীকতায় ময়মনসিংহ থেকে মুছে গেছে জঙ্গী, গডফাদার ও সন্ত্রাসীদের নাম। বাংলাদেশের শান্তিপূর্ন জেলা রোল মডেল ময়মনসিংহ, যার অবদান ময়মনসিংহ জেলা সুযোগ্য পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন। তিনি আজ ৪ ঘটিকায় পুলিশ লাইন মাঠে ট্রেইনি রিক্রুট কনষ্টেবল নিয়োগ চুড়ান্ত বাছাই সংক্রান্তে প্রেস ব্রিফিং করবেন। চুরান্তভাবে উর্ত্তীনদের নাম তালিকা ঘোষনা করেন। এতে পুরুষ সাধারন কোঠা ১৬০ জন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান/নাতি কোঠায় ৩০ জন, পুলিশ পোষ্য (পুরুষ) ৭ জন, এতিম কোঠায় ১, ক্ষুদ্রনৃ গোষ্ঠি কোঠা ৯পুরুষ) ৪, মহিলা সাধারন ৫০, মুক্তিযোদ্ধা মহিলা ১, পুলিশ পোষ্য মহিলা ৩, ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠি ১ মোট ২৫৭ জন ট্রেনিং রিক্রুট এর জন্য মনোনীত হয়। জেলা পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন নিয়োগ প্রকৃয়া কাজে নিয়োজি সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।