মিথ্যা মামলা হামলা ও হয়রানী প্রতিবাদে নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবে সাবেক সেনা কর্মকর্তার সংবাদ সম্মেলন

নেত্রকোনা প্রতিনিধি | রবিবার, জুলাই ২৮, ২০১৯
মিথ্যা মামলা হামলা ও হয়রানী প্রতিবাদে
নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবে সাবেক
সেনা কর্মকর্তার সংবাদ সম্মেলন

 মিথ্যা মামলা হামলা ও হয়রানী প্রতিবাদে রবিবার নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
      সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার বৈরাটী ইউনিয়নের তেনুয়া গ্রামের সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ওয়ারেন্ট অফিসার মোঃ মজিবুর রহমান বাচ্চু। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সেনাবাহিনী থেকে অবসর গ্রহনের পর গ্রামের বাড়ি তেনুয়া গ্রামে ফিশারী দিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে সুখে শান্তিতে বসবাস করে আসছি। একই গ্রামের ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ মিরপুর পল্লবী সার্কেলের সহকারী পুলিশ

কমিশনার কামাল হোসেন গত ১৮ জুন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন চলাকালে পূর্বধলা থানা পুলিশকে ফোন করে বলে, তার গ্রামের বাড়িতে সশস্ত্র সন্ত্রাসী লোকজন হামলা করে বাড়িঘর ভাংচুর করছে। এরই প্রেক্ষিতে নির্বাচনী দায়িত্বে থাকা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তারা সেখানে কোন ধরনের হামলা বা ভাংচুরের আলামত দেখতে পায়নি।

ঐদিন রাতেই পুলিশ কর্মকর্তা কামাল হোসেনের অনুগত লোকজন আমার বাড়ী থেকে কিছুটা দূরে ফিশারীতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর এবং গুদাম ঘরে থাকা মাছের খাদ্য ও সৌর বিদ্যুতের ব্যাটারীসহ আনুমানিক তিন লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এতেও তিনি ক্ষান্ত হননি। উক্ত পুলিশ কর্মকর্তা তার ক্ষমতার প্রভাব কাটিয়ে আমার ও আমার পরিবার এবং আত্মীয় স্বজনদের নামে মিথ্যা মামলা, হামলা করে প্রতিনিয়তই ভয়ভীতি প্রদর্শন সহ নানা ভাবে হয়রানী এবং ক্ষতিগ্রস্থ করছে।

     সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সু-দৃষ্টি কামনা করে বলেন, তার পরিবার এখন সম্পূর্ণ অনিরাপদ। তিনি আরো বলেন, প্রশাসন যেন এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে পুলিশ কর্মকর্তার এহেন কর্মকান্ডের কবল থেকে এলাকার সাধারণ মানুষ ও আমার পরিবার নিয়ে নির্বিঘেœ নিরাপদে বসবাস করতে পারি তার সুব্যবস্থা করেন। পুলিশ কর্মকর্তা কামাল হোসেন ও তার অনুগত লোকজনের অব্যাহত ষড়যন্ত্র ও হয়রানীর কারনে আমি আমার পরিবার পরিজন নিয়ে বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি।