ঘুম থেকে উঠেই যে ৩টি কাজ করবেন না

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯
ঘুম থেকে উঠেই যে ৩টি কাজ করবেন না
কালে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যেস আছে? আজকাল এই ব্যস্ত জীবনে ঘুমনোর সময়ই বা কোথায়। কিন্তু এই ব্যস্ততার মধ্যেই যে কয়েকটা বিষয় আপনাকে মাথায় রাখতেই হবে, সেগুলিই নিচে রইল, একবার চোখ বুলিয়ে নিন…

১) ঘুম থেকে উঠেই যা করবেন:
অনেকেই রয়েছেন যাঁরা অ্যালার্ম বাজার সঙ্গে সঙ্গে হুড়মুড় করে নেমে পড়েন বিছানা থেকে। সাবধান! কখনও ভুলেও এমনটা করবেন না। এই সময় আপনার শরীরের সমস্ত স্নায়ুতন্ত্র বিশ্রামে থাকে। দীর্ঘক্ষণ সক্রিয় থাকে না আপনার অঙ্গ-প্রত্যঙ্গও। তাই তাড়াহুড়ো করে এমন কাজ করলে কিন্তু ঘটে যেতে পারে মারাত্মক বিপদ। আবার ঘুম চোখে বিছানাতেও বসে থাকা সমস্যার সমাধান নয়। বরঞ্চ ঘুম থেকে ওঠার সময় বিছানাতে শুয়ে শুয়ে হাত-পা এর ফ্রি এক্সারসাইজ অথবা এমনই হালকা করে আড়মোড়া ভেঙে শরীরকেও সুপ্রভাত জানিয়ে ধীরে ধীরে উঠে বসেও একইরকমভাবে হাত-পা নাড়াতে থাকুন। তারপরে নামুন বিছানা থেকে।

২) বেড টি চাইই চাই?

বেড টি ছাড়া অনেকেই দিন শুরু করতে পারেন না। বিছানায় বসে বসেই এই বাবুয়ানি কায়দায় আপনারও কি দিন শুরু হয়? তাহলে শুধরে নিন নিজেকে। খালি পেটে অ্যাসিডিক কিছু না পান করে, আপনি বরঞ্চ নাস্তা খাওয়ার পরেই চা বা কফি পান করুন। একতে আপনার হজম-শক্তিও ঠিক থাকবে, হবে না পেটের কোনো রকম সমস্যা।

৩) চোখ খুলেই ফোন?
একেবারেই এটা করবেন না। আরে ফোন তো আপনার সঙ্গেই রয়েছে। সে তো পালিয়ে যাচ্ছে না। কিন্তু দীর্ঘদিন যদি এই অভ্যাস চালিয়ে যান তাহলে কিন্তু শরীর একসময় আপনাকে ঠিক জবাব দিয়ে দেবে। বেশিরভাগই চোখ খোলা মাত্র কাছে টেনে নেন তাঁদের সাধের মুঠোফোনটিকে। নেট অন করে ডিজিটালি এদিকে সেদিক ঘুরে তবেই শান্তি। এতে কিন্তু আপনার মনের ওপর চাপ পড়ে। চাপ পড়ে চোখের ওপরেও। তাই শরীর ও মনের ক্ষতি না চাইলে, সারাদিন তো পড়ে রয়েছে, সকালটুকু না হয় একটু দূরে থাকলেন এই ছোট্ট যন্ত্রটির থেকে!
সকালে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যেস আছে? আজকাল এই ব্যস্ত জীবনে ঘুমনোর সময়ই বা কোথায়। কিন্তু এই ব্যস্ততার মধ্যেই যে কয়েকটা বিষয় আপনাকে মাথায় রাখতেই হবে, সেগুলিই নিচে রইল, একবার চোখ বুলিয়ে নিন…

১) ঘুম থেকে উঠেই যা করবেন:
অনেকেই রয়েছেন যাঁরা অ্যালার্ম বাজার সঙ্গে সঙ্গে হুড়মুড় করে নেমে পড়েন বিছানা থেকে। সাবধান! কখনও ভুলেও এমনটা করবেন না। এই সময় আপনার শরীরের সমস্ত স্নায়ুতন্ত্র বিশ্রামে থাকে। দীর্ঘক্ষণ সক্রিয় থাকে না আপনার অঙ্গ-প্রত্যঙ্গও। তাই তাড়াহুড়ো করে এমন কাজ করলে কিন্তু ঘটে যেতে পারে মারাত্মক বিপদ। আবার ঘুম চোখে বিছানাতেও বসে থাকা সমস্যার সমাধান নয়। বরঞ্চ ঘুম থেকে ওঠার সময় বিছানাতে শুয়ে শুয়ে হাত-পা এর ফ্রি এক্সারসাইজ অথবা এমনই হালকা করে আড়মোড়া ভেঙে শরীরকেও সুপ্রভাত জানিয়ে ধীরে ধীরে উঠে বসেও একইরকমভাবে হাত-পা নাড়াতে থাকুন। তারপরে নামুন বিছানা থেকে।

২) বেড টি চাইই চাই?

বেড টি ছাড়া অনেকেই দিন শুরু করতে পারেন না। বিছানায় বসে বসেই এই বাবুয়ানি কায়দায় আপনারও কি দিন শুরু হয়? তাহলে শুধরে নিন নিজেকে। খালি পেটে অ্যাসিডিক কিছু না পান করে, আপনি বরঞ্চ নাস্তা খাওয়ার পরেই চা বা কফি পান করুন। একতে আপনার হজম-শক্তিও ঠিক থাকবে, হবে না পেটের কোনো রকম সমস্যা।

৩) চোখ খুলেই ফোন?
একেবারেই এটা করবেন না। আরে ফোন তো আপনার সঙ্গেই রয়েছে। সে তো পালিয়ে যাচ্ছে না। কিন্তু দীর্ঘদিন যদি এই অভ্যাস চালিয়ে যান তাহলে কিন্তু শরীর একসময় আপনাকে ঠিক জবাব দিয়ে দেবে। বেশিরভাগই চোখ খোলা মাত্র কাছে টেনে নেন তাঁদের সাধের মুঠোফোনটিকে। নেট অন করে ডিজিটালি এদিকে সেদিক ঘুরে তবেই শান্তি। এতে কিন্তু আপনার মনের ওপর চাপ পড়ে। চাপ পড়ে চোখের ওপরেও। তাই শরীর ও মনের ক্ষতি না চাইলে, সারাদিন তো পড়ে রয়েছে, সকালটুকু না হয় একটু দূরে থাকলেন এই ছোট্ট যন্ত্রটির থেকে!