শামীমের হুমকি— ‘হাইকোর্টে এলে তোকে গুলি করে মারব’

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
শামীমের হুমকি— ‘হাইকোর্টে এলে তোকে গুলি করে মারব’

জি কে শামীম জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা কাউসার আহমেদ পলাশকে গুলি করে হত্যার হুমকি দেন। নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ঐতিহ্যবাহী আলীগঞ্জ খেলার মাঠ রক্ষার দাবিতে হাইকোর্টে করা মামলা তুলে নিতে এ হুমকি দেন তিনি। পলাশ এ বিষয়ে ২০১৬ সনের ১২ মে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (ডায়েরি নং ৬১৬) করেন।

ওই হুমকির ব্যাপারে সাংবাদিকদের কাউসার আহমেদ পলাশ জানান, ২০১৬ সনের ১২ মে দুপুরে ০১৭১৩১৭৬৪৭৪ নম্বর থেকে কল করেন জি কে শামীম। তিনি নিজেকে যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা হিসেবে পরিচয় দেন। শামীম মাঠ রক্ষার জন্য হাইকোর্টে করা মামলা তুলে নিতে চাপ দেন। তা না হলে গুলি করে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়। ওই দিন মুঠোফোনে অকথ্য ভাষায় গালমন্দও করেন এই শামীম।

শ্রমিক নেতা পলাশ তখন যোগাযোগ করেন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আমজাদ হোসেনের সঙ্গে। আমজাদ হোসেনে নিশ্চিত করেন; হুমকি প্রদানকারী কেন্দ্রীয় যুবলীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক জি কে শামীম।

ওই দিন আবারও রাত ৯টার দিকে ০১৯১৪২২১১২৪ নম্বর থেকে কল করে পলাশকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করা হয়। তখনও তাকে হুমকি দেওয়া হয় যে, হাইকোর্টে গেলে প্রকাশ্যে গুলি করে মারা হবে।

শ্রমিক নেতা পলাশ জানান, জি কে শামীমের ওই হুমকিটিও ছিল একটি ভবন নির্মাণের জন্য টেন্ডার নিয়ে।

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) র‍্যাব যুবলীগ নেতা এস এম গোলাম কিবরিয়া ওরফে জি কে শামীমের কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে ও তার ৭ দেহরক্ষীকে গ্রেফতার করে। এ সময় এক কোটি ৮০ লাখ টাকা, ১৬৫ কোটি টাকার এফডিআর কাগজপত্র, নয় হাজার ইউএস ডলার, ৭৫২ সিঙ্গাপুরি ডলার, একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও মদের বোতল জব্দ করা হয়। বর্তমানে শামীম ১০ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন।